শ্রমিক কল্যাণ তহবিলে লভ্যাংশ জমা দিলো তিন কোম্পানি

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট ২১:২৬ , অক্টোবর ০৯ , ২০১৯

শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ানের হাতে লভ্যাংশ তুলে দেওয়া হয়বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিলে ২ কোটি ৮৪ লাখ ৭৬ হাজার ঢাকা জমা হয়েছে। মোবাইল কোম্পানি রবি এজিয়াটা লি., সুইং থ্রেড কোম্পানি কোটস ও সিমেন্ট উৎপাদনকারী কোম্পানি লাফার্জ হোলসিম গত এক বছরের লভ্যাংশের নির্দিষ্ট অংশ হিসেবে এই টাকা জমা দিয়েছে।

বুধবার (৯ অক্টোবর) বাংলাদেশ সচিবালয়ে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ানের হাতে কোম্পানি তিনটির প্রতিনিধিরা নিজ নিজ কোম্পানির পক্ষে লভ্যাংশের এই চেক হস্তান্তর করেন।

মোবাইল কোম্পানি রবি এজিয়াটা লি. এর পক্ষে কোম্পানির প্রধান মানবসম্পদ কর্মকর্তা ফয়সাল ইমতিয়াজ খান তাদের গত এক বছরের লভ্যাংশের নির্দিষ্ট অংশ এক কোটি ৩৩ লাখ ৯৮ হাজার ৩১০ টাকার চেক দেন। সুইং থ্রেড কোম্পানি কোটস এর মানবসম্পদ পরিচালক মননিতা তাদের লভ্যাংশের নির্দিষ্ট অংশ ৮৩ লাখ ৩৯ হাজার ৫২৮ টাকার চেক ও লাফার্জ হোলসিম এর মানবসম্পদ পরিচালক কাজী মিজানুর রহমান তাদের কোম্পানির গত এক বছরের লভ্যাংশের নির্দিষ্ট অংশ ৬৭ লাখ ৩৯ হাজার ৪৩ টাকার চেক হস্তান্তর করেন।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ শ্রম আইন অনুযায়ী কোম্পানির নিট লাভের শতকরা পাঁচ ভাগের এক দশমাংশ বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিলে জমা দেওয়ার বিধান রয়েছে। এ পর্যন্ত দেশি-বিদেশি এবং বহুজাতিক মিলে ১৪৬টি কোম্পানি এ তহবিলে অর্থ জমা করেছে। এ তহবিলে আজ (৯ অক্টোবর) পর্যন্ত জমার পরিমাণ প্রায় ৩শ ৮৩ কোটি ৭৬ লাখ টাকা। অন্যদিকে এ তহবিল থেকে প্রাতিষ্ঠানিক-অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতের প্রায় সাড়ে দশ হাজার শ্রমিককে প্রায় ৩২ কোটি টাকা সহায়তা দেওয়া হয়েছে।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রণালয়ের সচিব কে এম আলী আজম, বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক ড. রেজাউল হক, কেন্দ্রীয় তহবিলের মহাপরিচালক ড. আনিসুল আওয়াল, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতরের মহাপরিদর্শক শিবনাথ রায় উপস্থিত ছিলেন।

 

/এসআই/এনআই/

x