সাংবাদিক শিমুল হত্যা: মেয়র মিরু বরখাস্ত

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি ১৫:৪৫ , জুন ১৯ , ২০১৭

শাহজাদপুর পৌরসভার মেয়র হালিমুল হক মিরুসাংবাদিক আব্দুল হাকিম শিমুল হত্যা মামলার প্রধান আসামি সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর পৌর মেয়র হালিমুল হক মিরুকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

স্থানীয় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ (পৌর-১ শাখা)’র উপ-সচিব মো. আব্দুর রউফ মিয়া স্বাক্ষরিত চিঠিতে তাকে পৌরসভা থেকে সাময়িক বহিস্কার করা হয়। একই মন্ত্রণালয়ের অপর এক আদেশে মিরুর একান্ত সহযোগী এবং শিমুল হত্যা মামলার ১৬নং আসামি পৌর কাউন্সিলর আব্দুর রাজ্জাককেও সাময়িক বহিস্কার করা হয়েছে।

জেলা আওয়ামী লীগের সাময়িক বহিস্কৃত নেতা আলোচিত মিরু বর্তমানে জেলা কারাগারে রয়েছেন। অপরদিকে কাউন্সিলর রাজ্জাক গ্রেফতারি পরোয়ানাভুক্ত পলাতক আসামি। তাদের দু’জনের গ্রামের বাড়ি শাহজাদপুর উপজেলার নলুয়া গ্রামে। শিমুল হত্যকাণ্ডের পর থেকেই রাজ্জাক পলাতক রয়েছেন।

স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক আবু নুর মো. শামসুজ্জামান বহিস্কারের বিষয়টি নিশ্চিত করে পত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে জানান, গত ২ ফেব্রুয়ারি শাহজাদপুরে সংঘর্ষ বাঁধে। পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে মিরুর শটগানের গুলিতে গুলিবিদ্ধ হন সাংবাদিক শিমুল। পরদিন দুপুরে মারা যান তিনি। এ ঘটনায় মিরু ও সহোদর মিন্টুসহ অন্যান্য আসামিদের বিরুদ্ধে শাহজাদপুর থানায় ফৌজদারি মামলা হয়। ব্যালিস্টিক প্রতিবেদনে প্রমাণিত হয় যে মিরুর গুলিতেই শিমুলের মৃত্যু হয়েছে। পুলিশ মিরু ও মিন্টুসহ ৩৮ জনের বিরুদ্ধে আদালতে গত ২ মে চার্জশিট জমা দেয়। যা গত ১৩ জুন আদালতে গৃহীত হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত হওয়ার পর কোনও মেয়র বা কাউন্সিলর পৌরসভায় দায়িত্ব পালনকালে সংশ্লিষ্ট পৌরসভার কর্মচারী-কর্মকর্তা এবং সেবা গ্রহণকারী সাধারণ নাগরিকদের মধ্যে আতঙ্ক বা ভীতি সঞ্চার হতে পারে। এমনকি, মামলার গুরত্বপূর্ণ সাক্ষীদের  সাক্ষ্য প্রভাবিত হওয়ারও যৌক্তিক আশঙ্কা রয়েছে।  এ কারণে স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন, ২০০৯ এর ৩১ এর উপ ধারা (১) মোতাবেক ক্ষমতা বলে মিরু ও রাজ্জাককে সাময়িক বহিস্কার করা হয়েছে।

 /বিএল/

Advertisement

Advertisement

Pran-RFL ad on bangla Tribune x