বেতন নিয়ে অনিশ্চয়তায় সিলেটের ডাকের সাংবাদিক-কর্মচারীরা

সিলেট প্রতিনিধি ২৩:০৩ , জুন ১৯ , ২০১৭

সিলেটের ডাক পত্রিকার সাইনবোর্ড (ছবি- সিলেট প্রতিনিধি)

সিলেটের বহুল প্রচারিত দৈনিক ‘সিলেটের ডাক’-এর ডিক্লারেশন বাতিল হওয়ায় কর্মরত সাংবাদিক-কর্মচারীরা চলতি মাসের বেতন-ভাতা পাবেন কি না,  তা নিয়ে অনিশ্চয়তায় পড়েছেন। পত্রিকাটির মালিকপক্ষ থেকে বেতন-ভাতার ব্যাপারে কোনও ঘোষণা না আসায় সাংবাদিক-কর্মচারীদের মধ্যে এ অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।

সাংবাদিক-কর্মচারীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ১৯৮৪ সাল থেকে সিলেটের ডাক প্রকাশিত হয়ে আসছে। এর সঙ্গে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে প্রায় ২০০ মানুষের জীবিকা জড়িত। ডিক্লারেশন বাতিল করায় সোমবার (১৯ জুন) পত্রিকাটি প্রকাশিত হয়নি বলেও জানান তারা।

রাগীব আলীর মামলার আইনজীবী ও দৈনিক সিলেটের ডাকের সিনিয়র রিপোর্টার আব্দুল মুকিত অপি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, এমন একটা সময় পত্রিকাটির ডিক্লারেশন বাতিল করা হয়েছে যখন কর্মরতদের বেতন ও উৎসব ভাতা পাওয়ার কথা। এখন আমরা বেতন ও উৎসব ভাতা পাবো কিনা তা নিয়ে অনিশ্চয়তার মধ্যে রয়েছি।

পত্রিকাটির চিফ রিপোর্টার সিরাজুল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘ঈদের আগে পত্রিকাটির ডিক্লারেশন বাতিল করায় বেতন-ভাতা পাবো কি না, বুঝতে পারছি না। যদি বেতন-ভাতা না পাই তবে ঈদ করবো কেমনে!’

পত্রিকাটির বিক্রয়কর্মী ফারুক আহমদ জানান, ‘গ্রাহকদের কাছে সিলেটের অন্য পত্রিকার চেয়ে সিলেটের ডাকের চাহিদা বেশি। সোমবার যখন বিভিন্ন বাসা-বাড়িতে পত্রিকা বিলি করতে যাই তখন অনেকেই সিলেটের ডাক চান। বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তা আর দিতে পারিনি। সিলেটের ডাকের বদলে অন্য পত্রিকা দিতে চাইলে তারা নেননি।’

সিলেটের ডাকের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আব্দুল হান্নান জানান, ‘আইনি লড়াই শেষ হলে আবারও পত্রিকা প্রকাশিত হবে। তবে সাংবাদিক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা নিয়ে তিনি কিছু বলেননি।’

রবিবার এক নোটিশে সিলেটের ডাকের ডিক্লারেশন বাতিলের ঘোষণা দেয় জেলা প্রশাসন। প্রকাশক ও সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি রাগীব আলী এবং সম্পাদক আব্দুল হাই সাজাপ্রাপ্ত আসামি হওয়ায় পত্রিকাটির ডিক্লারেশন বাতিল করা হয়।

/এমএ/টিএন/

x