একই তারিখে চবি, নোবিপ্রবি, বশেমুরপ্রবি’র ভর্তি পরীক্ষা, বিপাকে শিক্ষার্থীরা

নোবিপ্রবি প্রতিনিধি ০২:১৪ , সেপ্টেম্বর ১৫ , ২০১৮

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি), নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (নোবিপ্রবি) এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বশেমুরবিপ্রবি) ভর্তি পরীক্ষার তারিখ প্রায় একই সময়ে নির্ধারণ করায় বিপাকে পড়েছেন ভর্তিচ্ছুরা। অনেকেই তিন বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষা দিতে চাইলেও মাত্র একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিতে পারছেন। তাই এখনই বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ভর্তি পরীক্ষা তারিখ সমন্বয় করার দাবি জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ভর্তি পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, আগামী ২৬, ২৭ এবং ২৮ অক্টোবর নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়াও আগামী ২৭, ২৮, ২৯ এবং ৩০ অক্টোবর চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এবং ২৮, ২৯ অক্টোবর ও ২, ৩ নভেম্বর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার সময়সূচি নির্ধারণ করা হয়েছে। ২৭ অক্টোবর নোবিপ্রবি ও চবি’র ভর্তি পরীক্ষা হবে। আর ২৮ অক্টোবর একই দিনে নোবিপ্রবি, চবি ও বশেমুরপ্রবি’র ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। তাই শিক্ষার্থীরা চাইলেও একাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিতে পারবে না। একই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে দূরুত্ব থাকায় অন্যান্য দিনের পরীক্ষায় হাজির হওয়ার তাদের জন্য কষ্টসাধ্য হবে।

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির বিশেষায়িত একটি কোচিং সেন্টারে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে কোচিং করছেন শিক্ষার্থী নন্দিতা দত্ত। তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘নোবিপ্রবি যেহেতু আমার নিজ জেলার বিশ্ববিদ্যালয়, তাই এখানে ভর্তি পরীক্ষা দেওয়ার জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত ছিলাম। কিন্তু একই দিনে চবিতেও পরীক্ষা। নোবিপ্রবিতে জিপিএ মার্কস কাউন্ট করে ১০০ আর চবিতে ২০ তাই চবিতে আবেদন করেছি। যেহেতু আমার জিপিএ কম তাই নোবিপ্রবিতে আবেদন করিনি। করেও লাভ নেই পরীক্ষা তো দিতে পারব না।’
ভর্তিচ্ছু আরেক শিক্ষার্থীর রুকাইয়া সুলতানা বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘চবি দ্বিতীয়বার পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ নেই কিন্তু নোবিপ্রবিতে সেই সুযোগ আছে। একদিকে একই দিনে পরীক্ষা অন্যদিকে সুযোগ যেহেতু একবারই সুযোগ তাই আমি নোবিপ্রবিতে আবেদন না করে চবিতেই করেছি।’
নোবিপ্রবি’র অ্যাপ্লাইড কেমেস্ট্রি অ্যান্ড কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান এবং বিশ্ববিদ্যালয় রিজেন্ট বোর্ড সদস্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ইউসুফ মিঞা জানান, তিনি ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত মিটিংয়ে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করবেন।
নোবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. আব্দুল্লাহ আল মামুন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘যে ইস্যুটা সামনে এসেছে তা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আগামী সপ্তাহে ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে মাননীয় উপাচার্যের সঙ্গে আমাদের মিটিং আছে। আমি মিটিং এ বিষয়টি উত্থাপন করব। সেখানে বিষয়টি আলোচনা করা হবে।’
তবে বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার প্রফেসর মোমিনুল হকের কাছে জানতে চাইলে তিনি মন্তব্য করতে রাজি হননি।

/আরএ/

x