সংখ্যালঘু স্বার্থবিরোধীদের ভোট দেওয়া হবে না: রানা দাস গুপ্ত

খুলনা প্রতিনিধি ২১:০৪ , ডিসেম্বর ০৭ , ২০১৮

হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের বিভাগীয় প্রতিনিধি সভায় রানা দাস গুপ্তসংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের স্বার্থবিরোধীদের ভোট না দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রানা দাস গুপ্ত। রাজাকার, স্বাধীনতাবিরোধী, ভূমিদস্যু, সংখ্যালঘু-আদিবাসী নির্যাতনকারী ও সাম্প্রদায়িক কোনও দলকে ভোট না দিতে ধর্মীয় সংখ্যালঘু সাধারণ মানুষের প্রতি তিনি অনুরোধ জানান।
শুক্রবার (৭ ডিসেম্বর) দুপুরে মহানগরীর বিভাগীয় জাদুঘর মিলনায়তনে হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের বিভাগীয় প্রতিনিধি সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ আহ্বান জানান। আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে এই সভার আয়োজন করা হয়।
সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উদ্দেশে অ্যাডভোকেট রানা দাস বলেন, প্রতিবারই নির্বাচনের আগে ও পরে সংখ্যালঘু ভোটারদের ওপর হামলা চালানো হয়। এবার কারও ওপর হামলা চালানো হলে তা মেনে নেওয়া হবে না। সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে এই নির্যাতনের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।
তিনি আরও বলেন, ‘আমরা আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের তাদের দলের সংখ্যালঘুদের মধ্য থেকে ৩১ জনকে মনোনয়ন দেওয়ার কথা বলেছি। তারা আমাদের মাত্র ১৮ জনকে মনোনয়ন দিয়েছেন। আর বিএনপি ১৪ জনকে মনোনয়ন দিয়েছে। যদিও বিএনপির প্রার্থী এখনও চূড়ান্ত হয়নি। সংখ্যালঘু কোটায় যারা মনোনয়ন পেয়ে নিজ সম্প্রদায়ের জন্য কোনও কাজ করেননি তাদেরও ভোট না দেওয়ার জন্য তিনি সকলকে অনুরোধ করেন।
বিভাগীয় প্রতিনিধি সভার সভাপতিত্ব করেন নগর সভাপতি অ্যাডভোকেট বিরেন্দ্রনাথ ঘোষ। যৌথভাবে সভা পরিচালনা করেন নগর সাধারণ সম্পাদক গোপাল চন্দ্র সাহা ও জেলা সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ডা. শ্যামল দাস। বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি বিজয় কুমার ঘোষ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট তাপস পাল ও নির্মল চ্যাটার্জী। শুভেচ্ছা বক্তৃতা করেন জেলা সভাপতি বিমান বিহারী রায় অমিত। আরও বক্তৃতা করেন বাগেরহাট জেলা সভাপতি শিব প্রসাদ ঘোষ, সাতক্ষীরা জেলা সভাপতি গোপাল কৃষ্ণ ভক্ত, নড়াইল জেলা সভাপতি অধ্যাপক মলয় কুমার নন্দী, ছাত্র-যুব ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি রবার্ট নিক্সন ও ছাত্রযুব ঐক্য পরিষদের নগর সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিত দে মিঠু, জেলা সাধারণ সম্পাদক অনিমেষ সরকার রিন্টু। সভায় উপস্থিত ছিলেন বিভাগীয় ১০ জেলা, বিভিন্ন উপজেলা ও থানার নেতারা।

/ওআর/

x