সুনামগঞ্জে দ্রুত ফসল রক্ষা বাঁধ নির্মাণের দাবিতে মানবন্ধন

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি ১৪:০৭ , জানুয়ারি ১২ , ২০১৯

সুনামগঞ্জ শহর রক্ষা বাঁধ নির্মাণের জন্য মানববন্ধন

সুনামগঞ্জে দ্রুত ফসল রক্ষা বাঁধ নির্মাণ, গণশুনানির মাধ্যমে প্রকল্প বাস্তবায়ন ও হাওরে অপ্রয়োজনীয় বেড়ি বাঁধের নির্মাণ বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন করেছে হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলনের কেন্দ্রীয় কমিটি। শনিবার সকাল সাড়ে ১১টায় শহরের ট্রাফিক পয়েন্টে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। একই সঙ্গে জেলার ১১টি উপজেলায় একই দাবিতে শাখা সংগঠনের কর্মীরা মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন।

মানববন্ধন সংগঠনের নেতারা অভিযোগ করে বলেন,‘পিআইসি প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি গঠনের জন্য গণশুনানি হওয়ার কথা থাকলেও তা মানা হচ্ছে না। অনিয়ম ও দলীয়করণের মাধ্যমে পিআইসি গঠন করা হচ্ছে। বক্তারা অনিয়ম দূর করে দ্রুত হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধ নির্মাণের দাবি জানান। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা বজলুল মজিদ চৌধুরী, সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অবু সুফিয়ান, সাধারণ সম্পাদক বিজন সেন রায় প্রমুখ।

সংগঠনের সভাপতি বলেন,‘প্রতিবছর এসময় একটি সিন্ডিকেট সক্রিয় হয়ে  ফসল রক্ষা বাধের কাজ না করে বরাদ্দের টাকা লুটপাটের জন্য উঠেপড়ে লাগে। প্রশাসনের কিছু দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা-কর্মচারী ও পাউবোর কিছু দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা কর্মচারী এবং রাজনৈতিক কিছু টাউট মিলে একটা সিন্ডিকেট করেন। তাদের দুর্নীতির কারণে ২০১৭ সালে সুনামগঞ্জের শতভাগ ফসল অকাল বন্যায় তলিয়ে যায়। এবারও বাধের কাজ সঠিক নিয়মে না করলে ১৭ সালের অবস্থা সৃষ্টি হতে পারে।’

সাধারণ সম্পাদক বিজন সেন রায় বলেন, সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরও কেন পিআইসি’র কমিটি গঠিত হলো না। বাধ নির্মাণে অনিয়ম ও দুর্নীতির জন্য তিনি স্থানীয় প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ডকে দায়ী করেন।

তিনি অভিযোগ করে বলেন,‘টাকার বিনিময়ে পিআইসি কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামীতে যদি হাওরে কোনও বিপর্যয় ঘটে তাহলে দায়ী থাকবে পানি উন্নয়ন বোর্ড ও জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা। যদি অনিয়ম দূর করে ফসল রক্ষা বাধ নির্মাণ শুরু করা না হয়, তা হলে আমরা আবারও আন্দোলনে যাবো। মানববন্ধনে সংগঠনের লোকজন ছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ একাত্মতা প্রকাশ করেন।’ 

উল্লেখ্য,জেলায় ২ লাখ ১৭ হাজার হেক্টর জমিতে এবছর বোরো আবাদ করা হয়েছে। আগাম বন্যার হাত থেকে বোরো ফসল রক্ষার জন্য সরকার ৪৪০ কিলোমিটার বাধ নির্মাণের জন্য ৯৪ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে। কিন্তু এখনো হাওরে ফসল রক্ষা বাধ নির্মাণের কাজ শুরু হয়নি। 

 

/জেবি/

x