কোম্পানীগঞ্জে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার, শ্বশুর-শাশুড়ি আটক

নোয়াখালী প্রতিনিধি ২০:০০ , এপ্রিল ১৯ , ২০১৯

নোয়াখালী

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের চর ফকিরা ইউনিয়ন থেকে শারমিন আক্তার রিতু (২০) নামে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনার পর গৃহবধূর স্বামী মোশারফ হোসেন বাহাদুর পালিয়ে গেলেও নিহতের শ্বশুর আবুল কালাম (৪৮) ও শাশুড়ি আরাধনীকে (৪০) আটক করেছে পুলিশ।

নিহত শারমিন আক্তার রিতু উপজেলার চরফকিরা ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড আদর্শনগর গ্রামের কালা মিয়ার নতুন বাড়ির মোশারফ হোসেন বাহাদুরের স্ত্রী।

নিহতের পরিবার জানায়, ২০১৭ সালে চরফকিরা ইউনিয়নের চর কালী গ্রামের ফখরুল ইসলাম সবুজের মেয়ে শারমিন আক্তার রিতুর সঙ্গে একই ইউনিয়নের আদর্শ গ্রামের আবুল কালামের ছেলে ওমানপ্রবাসী মোশারফ হোসেন বাহাদুরের বিয়ে হয়। বাহাদুর ২৪ দিন আগে ওমান থেকে বাড়িতে আসে।

শারমিনের মা তৈয়বের নেছার অভিযোগ, ‘বিয়ের পর থেকে শারমিনের শ্বশুর বাড়ি থেকে যৌতুকের জন্য তাকে চাপ দেওয়া শুরু করে। শারমিন তাদের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তাকে বিভিন্নভাবে নির্যাতন করা হতো। আমরা সামাজিকভাবে এর প্রতিকার চেয়েও কোনও প্রতিকার পাইনি। আজ তারা শারমিনকে হত্যা করে হাসপাতালে রেখে পালিয়ে যায়।’

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসাদুজ্জামান বলেন, ‘খবর পেয়ে কোম্পানীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে শারমিনের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে শ্বশুর আবুল কালাম ও শাশুড়ি আরাধনীকে আটক করা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের পর আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

 

/এমএ/

x