নারায়ণগঞ্জে আলাদা ঘটনায় চার জনের লাশ উদ্ধার

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি ০৯:১০ , জুলাই ২৪ , ২০১৯

 

নারায়ণগঞ্জনারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার, বন্দর, সিদ্ধিরগঞ্জ ও ফতুল্লা উপজেলা থেকে নারীসহ চার জনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এসব লাশ উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ জানায়, জমি নিয়ে বিরোধের জেরে আড়াইহাজার উপজেলার মারুয়াদী এলাকায় সুরুজ মিয়া (৪০) নামের একজনকে পিটিয়ে আহত করে প্রতিপক্ষের লোকজন। পরে আহতাবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

ওসি বলেন, ‘এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।’

এদিকে, সিদ্ধিরগঞ্জ উপজেলার মিজমিজি এলাকার মতিন সড়কের পাশ থেকে অজ্ঞাত (২৮) এক যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়। পুলিশ জানায়, নিহতের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, তাকে অন্য কোথাও হত্যা করে লাশ এখানে ফেলে রেখা হয়েছে।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) সেলিম মিয়া জানান, নিহতের পরিচয় শনাক্তের চেষ্টা চলছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। 

অপরদিকে, বন্দর থানার কাইতাখালী এলাকায়  পূর্বশত্রুতা ও টাকা পয়সা নিয়ে লেনদেনের জের ধরে মিশর (২৫) নামে এক যুবককে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় জড়িতের অভিযোগে তিন জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। নিহত মিশর বিদেশে থাকতেন। সম্প্রতি দেশে ফিরে একটি বেসরকারি কোম্পানিতে চাকরি নেন। মিশর কাইতাখালী এলাকার টুক্কু সিকদারের ছেলে।

বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় জড়িতের অভিযোগে তিন জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। 

এছাড়া ফতুল্লার লালখাঁ এলাকা থেকে শেফালী বেগম নামে এক নারীর গলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শেফালী বেগম ফেরি করে সবজি বিক্রি করতেন। তিন দিন আগে নিখোঁজ হয়েছিলেন তিনি। শেফালী একই এলাকার মৃত আব্দুল হামিদের মেয়ে।

পুলিশ জানায়, শেফালী মৃগরোগী ছিলেন। ধারণা করা হচ্ছে, পানিতে ডুবে তার মৃত্যু হয়েছে।

ফতুল্লা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা  (ওসি) আসলাম হোসেন জানান, পানিতে ডুবে নাকি কেউ শেফালীকে হত্যা করেছে, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

 

 

/আইএ/

x