বিশ্বে শান্তির সংস্কৃতি ছড়িয়ে দেওয়ার অঙ্গীকার রাখে বাংলাদেশ: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

সিলেট প্রতিনিধি ২৩:৩৩ , নভেম্বর ০৮ , ২০১৯

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন (ছবি: হারুন উর রশীদ)

বাংলাদেশ বিশ্বে শান্তির সংস্কৃতি ছড়িয়ে দেওয়ার অঙ্গীকার রাখে বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সিলেট সফরের শতবর্ষ উপলক্ষে চার দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের সমাপনী দিন শুক্রবার (৮ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৭টায় সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে এক আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘শতবর্ষ আগেও সিলেটের মানুষের হৃদয় অনেক বড় ছিল। যার কারণে হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান, মুসলমানদের বিভিন্ন সম্মেলনে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। শতবর্ষ পরও এই সিলেটের মানুষ দলমত নির্বিশেষে কবিগুরুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন করছেন। এটা আমাকে সত্যিই অভিভূত করে; এই জন্য আমি গর্ববোধ করি।’

তিনি আরও বলেন, ‘পৃথিবীতে যখন সংঘাত, হিংসা, বিবাদ লেগেই আছে, তখনও সিলেট ব্যতিক্রম। এখানে সম্মান আর শ্রদ্ধাবোধ আছে। এই শ্রদ্ধাবোধ আমাদের সত্যিকারের টেকসই শান্তি এনে দিতে পারে। সেইসঙ্গে বাংলাদেশ সারা বিশ্বের মধ্যে শান্তির সংস্কৃতি ছড়িয়ে দেওয়ার অঙ্গীকার রাখে। রবীন্দ্রনাথ সিলেটের আতিথেয়তায় মুগ্ধ হয়েছেন। তাই তো তিনি সিলেটের দুঃখ-দুর্দশায় ব্যথিতও হতেন।’

রবীন্দ্র স্মরণোৎসব পর্ষদের আহ্বায়ক ও সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদও বক্তব্য রাখেন। সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘সিলেটে স্বতন্ত্র সাংস্কৃতিক কেন্দ্র করার দাবি উঠেছে। এতে আমাদের দ্বিমত নেই। সিলেটের মেয়র যদি একটি প্রস্তাবনা তৈরি করে পাঠান, তবে তা অনুমোদন পেতে পারে। যেহেতু সিলেট থেকে পরিকল্পনামন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী আছেন, তারা এ বিষয় দেখবেন।’

গত ১ নভেম্বর থেকে সিলেটে রবীন্দ্র স্মরণোৎসব শুরু হয়। তবে মূলপর্ব শুরু হয় গতকাল বৃহস্পতিবার (৭ নভেম্বর)।

 

/এমএ/

x