চাঁদপুরে প্রস্তুত ৩১১ আশ্রয়কেন্দ্র, ১১৭ মেডিক্যাল টিম

চাঁদপুর প্রতিনিধি ১৫:৫৬ , নভেম্বর ০৯ , ২০১৯





মেঘনা ডাকাতিয়া পাড়ে চাঁদপুরের পুরাণবাজারঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’-এর ক্ষয়ক্ষতি মোকাবিলায় নানা প্রস্তুতি নিয়েছে চাঁদপুর জেলা প্রশাসন। এ জন্য নদী পাড় ও চরাঞ্চলের মানুষজনকে আশ্রয়কেন্দ্রে যাওয়ার জন্য মাইকিং করা হচ্ছে। জেলায় ৩১১টি আশ্রয়কেন্দ্র ও ১১৭টি মেডিক্যাল টিম প্রস্তুত রাখা হয়েছে। শনিবার (৯ নভেম্বর) সকাল থেকে এ জেলায় ৯ নম্বর মহাবিপদ সংকেত চলছে।
চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান খান জানিয়েছেন, সরকারি-বেসরকারি এক হাজার ১৩০ জন স্বেচ্ছাসেবক ও গ্রাম পুলিশের ৭৫০ জন সদস্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এছাড়া জেলার জন্য এই মুহূর্তে ১৮৪ টন চাল, এক লাখ ৬১ হাজার টাকা, ৭৩৪ বান্ডিল টিন ও পর্যাপ্ত শুকনো খাবার মজুত রাখা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের সব কর্মকর্তা কর্মচারীর ছুটি বাতিল করা হয়েছে।
জেলা প্রশাসক জানান, ঘূর্ণিঝডের কারণে যেকোনও অনাকাঙ্ক্ষিত ক্ষয়ক্ষতি প্রতিরোধে জেলার সব সরকারি-বেসরকারি দফতরকে, বিশেষ করে দুর্যোগ অধিদফতর, পানি উন্নয়ন বোর্ড, স্বাস্থ্য বিভাগ, কৃষি, বিআইডব্লিউটিএ, নৌ-পুলিশ, আনসার, ফায়ার সার্ভিস, কোস্টগার্ড, আবহাওয়া অফিস, রোভার স্কাউট ও রেডক্রিসেন্টের স্বেচ্ছাসেবী সদস্যদের প্রস্তুত ও সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। মানুষের জানমালের যেন কোনও ক্ষতি না হয় সেদিকে সবাইকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে বলা হয়েছে। জেলা ও উপজেলার সব বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নিজ নিজ অধিক্ষেত্রে সার্বক্ষণিক খোঁজ-খবর ও দুর্যোগ মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকার জন্য বলা হয়েছে। জেলার ৮টি উপজেলায় আজ দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
হাইমচরের ফায়ার সার্ভিসের ইনচার্জ জিএম আমির হোসেন বলেন, ‘আমরা সতর্ক অবস্থায় আছি। সকাল থেকেই নদীপাড়সহ বিভিন্ন এলাকায় মানুষজনকে সচেতন করার কাজ করছি। আশ্রয়কেন্দ্রে আসার জন্য বলেছি। মাইকিংও করা হয়েছে।’

চাঁদপুর-শরীয়তপুর ফেরিঘাটে আটকা পড়েছে তিন শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক
ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের কারণে শনিবার (৯ নভেম্বর) সকাল ৯টা থেকে চাঁদপুর-শরীয়তপুর নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে মেঘনার দু’পাড়ে তিন শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক আটকা পড়েছে।
আটকা পড়া পণ্যবাহী ট্রাকবিআইডব্লিউটিসি’র চাঁদপুর হরিণা ফেরিঘাট ম্যানেজার ফয়সাল আলম চৌধুরী বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে শনিবার সকাল থেকে বৃষ্টি বেড়েছে। এছাড়া মেঘনা নদীও কিছুটা উত্তাল হয়ে উঠছে। এ কারণে চাঁদপুর-শরীয়তপুর রুটে ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে দুপুর ২টা পর্যন্ত চাঁদপুরের হরিণাঘাট এলাকায় ২৫০টি পণ্যবাহী ট্রাক এবং শরীয়তপুর এলাকায় অন্তত ৬০টি ট্রাক আটকা পড়েছে। আবহাওয়া স্বাভাবিক হলে এ রুটে ফেরি চলাচল শুরু হবে।

/আইএ/এমওএফ/

x