বনিবনা না হলে একসঙ্গে মিথ্যা সুখে থাকার কী লাভ: শ্রাবন্তী

বিনোদন ডেস্ক ১৮:০০ , অক্টোবর ১২ , ২০১৭

শ্রাবন্তী। ছবি: সাজ্জাদ হোসেন।ফের ভাঙলো কলকাতার অন্যতম নায়িকা শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়ের ঘর। কৃষান ভিরাজের সঙ্গে তিনি আর থাকছেন না। যদিও কবে কোথায় কী কারণে ভেঙেছে তার নির্দিষ্ট কোনও প্রকাশ করেননি তিনি। শুধু এটুকু স্বীকার করলেন, স্বামী কৃষানের সঙ্গে ডিভোর্স হয়ে গেছে তার। বর্তমানে একমাত্র পুত্রকে নিয়ে সিঙ্গেল মাদারের জীবনযাপন করছেন বেশ সুখেই।
কলকাতার পত্রিকা ‘এই সময়’কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে শ্রাবন্তী বলেন, ‘দুজনে মিলেই সিদ্ধান্ত নিয়েছি বিচ্ছেদের। বনিবনা না হলে একসঙ্গে মিথ্যা সুখে থাকার কী লাভ। আমার কোনো অভিযোগ নেই আমার প্রাক্তনের বিরুদ্ধে। আমি চাই, আমার সঙ্গে না হোক , কিন্তু সে যেন ভালো থাকে।’
আরও বলেন, ‘আমি এখন ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে মাথা ঘামাচ্ছি না। কাজ আর ছেলের পড়াশোনা নিয়ে ব্যস্ত। ঝিনুক এবার ক্লাস এইটে। ওর স্কুলে যেতে সুবিধা হবে বলে বেহালা থেকে বাইপাসের ধারে বহুতল ভবনে বাসা নিয়েছি। বেশ ভালো আছি মা-ছেলে।’
বিচ্ছেদের কারণে হতাশা ঘিরে ধরেছে কি না, এমন প্রসঙ্গে শ্রাবন্তী বলেন, ‘ডিপ্রেসড হয়ে নিজের ক্ষতি করতে পারব না। কারণ আমার ছেলে, বাবা-মা সবসময় আমায় আগলে রাখে। মাঝে মাঝে ভাবি এত ভালোবেসেও আমি ভালোবাসা পেলাম না। তারপর ভাবি বাইরের লোক যাই বলুক, আমি তো জানি কারও সঙ্গে কেন সংসার করতে পারিনি। বাইরের লোক কী বললো, তা নিয়ে আর ভাবি না। তারা কেউ আমার সন্তানকে বড় করবে না। একটাই জীবন। সৎ পথে কাজ করলে ভগবান পাশে থাকবেনই।’
নিজেকে আবেগপ্রবণ দাবি করে এই অভিনেত্রী বলেন, ‘আমি খুব আবেগপ্রবণ। সংসার করতে ভালোবাসি। কিন্তু এখন মনে হয়, শুধু বর থাকলেই সংসার হবে এমন নয়। বাবা-মা, ছেলেকে নিয়েও সংসার হয়। প্রতিটা মেয়েই চায় সংসার করতে। কিন্তু আমার কপালে যা লেখা ছিল তাই হয়েছে। ভবিষ্যৎ কীরকম হবে জানি না। তবে আমি আগের থেকে পরিণত হয়েছি। দিদি, দিদির বন্ধুরা আছে। ওরা আমায় একাকিত্বে ভুগতে দেয় না। এখন কাজেও অনেক বেশি মন দিতে পারছি। মাঝে এক বছর কাজে অতটা মন দেইনি। আর ছেলেকে নিয়েও ভাবনা নেই। ও আমার সেরা বন্ধু। ভীষণ বোঝে আমায়।’
এদিকে সম্প্রতি মুক্তি পেতে যাচ্ছে শ্রাবন্তীর নতুন ছবি ‘জিও পাগলা’। রবি কিনাগির পরিচালনায় এতে আরও অভিনয় করেছেন সোহম, হিরন, পায়েল সরকার, ঋত্বিকা সেন, বনি, কৌশানী। প্রায় এক বছর পর রুপালি পর্দায় ফিরছেন জনপ্রিয় এই নায়িকা। মজার ব্যাপার হলো, এ ছবিতে শ্রাবন্তীর বিপরীতে আছেন তার কিশোরবেলার প্রিয় নায়ক যিশু সেনগুপ্ত। দুজনের রসায়নটা নাকি বেশ দারুণ জমেছে অফ এবং অন- দুই স্ক্রিনেই। কানাঘুষাও হচ্ছে টালিগঞ্জের সবখানে, তারা নাকি প্রেমেও পড়েছেন!
এদিকে নির্মাতা সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের নতুন ছবি ‘উমা’-তে অভিনয় করছেন শ্রাবন্তী। এ ছবিতেও তার বিপরীতে আছেন যিশু সেনগুপ্ত। ছবিটি দর্শকের মন ছুঁয়ে যাবে বলে প্রত্যাশা তার।শ্রাবন্তী ও কৃষাণ
প্রসঙ্গত, কৃষান ভিরাজ ছিলেন শ্রাবন্তীর দ্বিতীয় স্বামী। গেল বছর ৮ জুলাই মুম্বাইয়ের এই সুপারমডেলের সঙ্গে বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন। এর আগে ২০০৩ তার বিয়ে হয়েছিল চলচ্চিত্র নির্মাতা-প্রযোজক রাজীব বিশ্বাসের সঙ্গে। ওই সময় শ্রাবন্তী-রাজীবের ঘরে জন্ম নেয় ঝিনুক নামের এক পুত্রসন্তান। কিন্তু তাদের সে সংসার টেকেনি। ভেঙে যায় ২০১৬ সালে।

Advertisement

Advertisement

Pran-RFL ad on bangla Tribune x