অভিনেতা সালেহ আহমেদের পাশে প্রধানমন্ত্রী

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট ১৫:১০ , জানুয়ারি ১২ , ২০১৯

সালেহ আহমেদবছর আটেক আগে স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়েছিলেন জনপ্রিয় অভিনেতা সালেহ আহমেদ। এরপর বেশ কিছুদিন চিকিৎসা নিলেও এখন প্রায় বিনা চিকিৎসায় রাজধানীর উত্তরখানের বাসায় নীরবে দিন পার করছেন এই অভিনেতা।
হুমায়ূন আহমেদের ‘অয়োময়’ নাটক ও ‘আগুনের পরশমণি’ চলচ্চিত্র ছাড়াও অসংখ্য নির্মাণে অনবদ্যভাবে পর্দায় আসা এই অসহায় শিল্পীর পাশে এবার দাঁড়িয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নিজের তহবিল থেকে দিয়েছেন ২৫ লাখ টাকার সঞ্চয়পত্র।
গতকাল (১১ জানুয়ারি) সালেহ আহমেদের স্ত্রী ও সন্তানের হাতে এটি তুলে দেন।
বিষয়টি নিয়ে অভিনয় শিল্পী সংঘের সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব নাসিম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমাদের সংঘের পক্ষ থেকে সালেহ আহমেদের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করেছিলাম। মূলত সাবেক সংস্কৃতিমন্ত্রী ও অভিনেতা আসাদুজ্জামান নূর এ বিষয়ে খুব সহযোগিতা করেন। এই সঞ্চয়পত্রের লভ্যাংশ দিয়েই সালেহ ভাইয়ের চিকিৎসা চলবে।’
সালেহ আহমেদের পারিবারিক অবস্থা প্রসঙ্গে নাসিম আরও বলেন,  ‘তিনি দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ। তার মেয়ে নিজেও চিকিৎসক। তিনিই বাবার চিকিৎসা করাচ্ছিলেন। কয়েক বছর আগে অভিনয় শিল্পী সংঘের পক্ষ থেকে তাকে সাহায্যের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তার মেয়ে সেটি আন্তরিকভাবে ফিরিয়ে দেন। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত মেয়েটি মারা গেছেন। তাই পরিবারের অবস্থা এখন খুবই শোচনীয়। সালেহ আহমেদের অবস্থাও ভালো নয়। কথা বলতে পারেন না। বিছানাতেই তার দিন কাটে।’
সালেহ আহমেদবগুড়ার সারিয়া কান্দিতে সালেহ আহমেদের জন্ম। জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতরে চাকরির পাশাপাশি ময়মনসিংহে অমরাবতী নাটমঞ্চের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। স্বাধীনতার আগে থেকেই তিনি টেলিভিশন নাটকে নিয়মিত অভিনয় করতেন। ১৯৯১ সালে চাকরি থেকে অবসরে যাওয়ার পর হুমায়ূন আহমেদের নাটকে ও চলচ্চিত্রে অভিনয় করে দারুণ জনপ্রিয়তা পান।

/এম/এমএম/

x