জনরোষ থেকে ‘হামলাকারী’কে বাঁচালেন একজন ইমাম

বিদেশ ডেস্ক ১৪:৩০ , জুন ১৯ , ২০১৭

স্থানীয় লোকজন ফিনসবারি পার্কে নামাজ পড়ছেন
ইসলাম ফোবিয়ার যুক্তরাজ্যে হামলার স্বীকার হয়েও সন্দেহভাজন হামলাকারীর সুরক্ষা নিশ্চিত করেছেন একজন ইমাম।  দ্যা ইন্ডিপেনডেন্ট এবং গার্ডিয়ান বলতে চাইছে, জীবিত উদ্ধারের মধ্য দিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের স্বার্থেই ওই ইমাম তাকে বাঁচিয়ে রাখার চেষ্টা করেছেন। তবে সেইসব প্রতিবেদনে তারা ইমামের কোনও বক্তব্য হাজির করতে পারেননি তারা। পরে অন্য সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে ওই ইমাম জানিয়েছেন, তিনি বারংবার জানতে চেষ্টা করেছেন, কেন তিনি হামলা করেছেন।
লন্ডনের ফিনসবারি পার্কে মুসল্লিদের ওপর গাড়ি নিয়ে হামলার পর চালকের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন উপস্থিত লোকজন। উত্তেজিত জনতার হাতে পড়লে গণপিটুনিতে হয়তো মৃত্যুই হতো তার। তখন আর পুলিশের পক্ষে ওই চালককে জীবিত উদ্ধার করে জিজ্ঞাসাবাদ করা সম্ভব হতো না। তবে ওই ইমাম সেইসব কথা চিন্তা করেছেন কিনা, তা জানা যায়নি। সংবাদমাধ্যমকে তিনি জানিয়েছেন, বারংবার তিনি জানতে চেয়েছেন কেন তুমি এমন কাজ করলে? উত্তরে ওই সন্দেহভাজন তাকে হত্যা করতে বলেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম স্কাই নিউজকে বলেন, পুলিশ না আসা পর্যন্ত উত্তেজিত জনতার হাত থেকে হামলাকারী গাড়িচালককে সুরক্ষা দিয়েছেন ওই ইমাম। পরে পুলিশ এসে গাড়ি চালককে গ্রেফতার করে। হত্যা প্রচেষ্টার অভিযোগে তাকে আটক করা হয় বলে জানিয়েছে স্কটল্যান্ড ইয়ার্ড। পুলিশের ধারণা, ওই চালক একাই হামলা চালিয়েছে। 

এরইমধ্যে মুসলিম ওয়েলফেয়ার হাউস থেকে মোহাম্মদ মাহমুদ নামের ওই ইমামকে ধন্যবাদ জানানো হয়েছে। মুসলিম ওয়েলফেয়ারের এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘মোহাম্মদ মাহমুদের সাহস ও নির্ভীকতার কারণে তাৎক্ষণিকভাবে পরিস্থিতি শান্ত করা সম্ভব হয়েছে, আরও বেশি প্রাণহানি ও রক্তপাত ঠেকানো গেছে।’

ব্রিটেনের মুসলিম কাউন্সিল জানায়, স্থানীয় সময় রবিবার দিনগত রাত ১২টা ২০ মিনিটে একটি ভ্যান ‘ইচ্ছাকৃতভাবে’ মুসল্লিদের ধাক্কা দেয়। ওই মুসল্লিদের অনেকে তারাবির নামাজ শেষে বের হচ্ছিলেন। ওই ঘটনায় ১ জন নিহত হন। ঘটনাস্থল ফিনসবারি এলাকা থেকে ৪৮ বছর বয়সী একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।এখনও হামলাকারীর সংখ্যা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে ওই গাড়ি থেকে এক সন্দেহভাজন হামলকারী চিৎকার করে বলছিল, ‘আমি সব মুসলিমকে হত্যা করতে চাই।’ সে কারণে  মুসলিমদের প্রতি বিদ্বেষ থেকেই উত্তর লন্ডনের মসজিদকে লক্ষ্য করে হামলা হয়ে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

/এফইউ/বিএ/

x