কেনিয়ায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় নিহত ১১

বিদেশ ডেস্ক ২০:৫১ , আগস্ট ১২ , ২০১৭

কেনিয়ায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক ফল ঘোষণার পর ব্যাপক সহিংসতা শুরু হয়েছে। রায়ের পক্ষে-বিপক্ষে জনগণ রাস্তায় নেমে আসলে সহিংসতা শুরু হয়। শনিবার বিকাল পর্যন্ত সহিংসতায় ১১ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, শনিবার দেশটির রাজধানীতে বিক্ষোভ ও সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে। প্রতিবাদকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে ছোড়া পুলিশের গুলিতে অন্তত ১১ জন নিহত হয়েছেন।

রাতে নাইরোবির মাতহারে বস্তি এলাকায় ৯ যুবক গুলিতে মারা যায়। তাদের লাশ শহরে মর্গে রাখা হয়। নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের দাবি, লুটপাটের বিরুদ্ধে পুলিশের পরিচালিত অভিযানের সময় গুলিবিদ্ধ হয় যুবকেরা। পুলিশের গুলিতে পৃথক ঘটনায় এক তরুণীর মৃত্য হয়েছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

নির্বাচনে বর্তমান প্রেসিডেন্ট উহুরু কেনিয়াত্তা পুনরায় নির্বাচিত হওয়ার পর এ সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে। একদিকে ভুভূজেলা বাঁশি বাজিয়ে এবং পতাকা উড়িয়ে উল্লাস প্রকাশ করা হয়। অন্যদিকে বিরোধী সমর্থকরা ব্যাপক বিক্ষোভ-সহিংসতা শুরু করে। বিরোধী প্রবীণ নেতা রাইলা ওডিঙ্গার বিক্ষুব্ধ সমর্থকরা রাস্তায় টায়ার পুড়িয়ে ও বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে বিক্ষোভ প্রকাশ করে।

ওডিঙ্গা দাবি করেছেন যে নির্বাচনে কারচুপির মাধ্যমে জোর করে তাকে হারিয়ে দেয়া হয়েছে। এর পরপরই সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে।

কেনিয়ায় ২০০৭ সালের নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতার এক দশকের পর আবার একটি নির্বাচনকে কেন্দ্রকরে ব্যাপক সহিংসতা শুরু হয়েছে। ওই নির্বাচনের পর জাতিগতভাবে বিভক্ত রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে দুই মাস ধরে রক্তক্ষয়ী সহিংসতা হয়। এসব সহিংসতায় ১ হাজার ১০০ লোকের প্রাণহানি ও ছয় লাখ লোক গৃহহীন হয়ে পড়ে। সূত্র: রয়টার্স।

/এএ/

x