শান্তি প্রক্রিয়ায় মরণ কামড় বসিয়ে জাহান্নামের দরজা খুলেছেন ট্রাম্প!

বিদেশ ডেস্ক ১৪:৫২ , ডিসেম্বর ০৭ , ২০১৭

জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী ঘোষণার মধ্য দিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দ্বিরাষ্ট্রভিত্তিক ‘মধ্যপ্রাচ্য শান্তি প্রক্রিয়া’ ধ্বংস করেছেন বলে মন্তব্য করেছে ফিলিস্তিনি স্বাধীনতা আন্দোলনের সংগঠন পিএলও। যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত ফিলিস্তিনি রাষ্ট্রদূত ট্রাম্পের পদক্ষেপকে ‘মরণ কামড়’ আখ্যা দিয়েছে। সশস্ত্র মুক্তি আন্দোলনের সংগঠন হামাস বলছে, জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানীর স্বীকৃতি দিয়ে ট্রাম্প ‘জাহান্নামের দরজা’ খুলেছেন। মার্কিন সংবাদমাধ্যম নিউইয়ক টাইমসের এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

ফিলিস্তিনে বিক্ষোভ

বুধবার জেরুজালেমকে আনুষ্ঠানিকভাবে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতির ঘোষণা দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। একইসঙ্গে তিনি তেল আবিব থেকে মার্কিন দূতাবাসকে জেরুজালেমে স্থানান্তরের পরিকল্পনার কথাও জানান। ভাষণে ট্রাম্প বলেন, ‘জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার এখনই সময়। গত সাত দশকে ইসরায়েলি জনগণ এমন এক দেশ গড়ে তুলেছে যেখানে ইহুদি, মুসলিম খ্রিস্টানসহ নানা ধর্মে বিশ্বাসী মানুষ স্বাধীনভাবে বাস করে আসছে এবং তাদের নিজ নিজ ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী উপাসনা করে আসছে।’

নিউ ইয়র্ক টাইমস-এর প্রতিবেদনে বলা হয়, গাজা উপত্যকায় শাসন করা হামাস আরব ও মুসলিম বিশ্বের প্রতি মার্কিন এই ঘোষণার বিরোধীতা করার আহ্বান জানিয়েছেন। হামাস নেতা ইসমাইল হানিয়াহ বলেন, ‘আমরা জানি কিভাবে এর জবাব দিতে হয়। এই সিদ্ধান্তে মার্কিন স্বার্থে এই অঞ্চলে জাহান্নামের দরজা খুলে গেল।’ ইসমাইল বলেন, ট্রাম্পের ঘোষণায় ইতিহাস ও ভূগোল পাল্টে যাবে না।

প্যালেস্টাইনি লিবারেশন অর্গানাইজেশন- পিএলও জানায়, ট্রাম্প দ্বি-রাষ্ট্র নীতিকে ধ্বংস করে দিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র আর শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে পারবে না। জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী ঘোষণার সিদ্ধান্ত প্রত্যাখ্যান করার হুমকি দিয়েছেন ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস। ফিলিস্তিনি নেতৃত্ব এই সিদ্ধান্ত মানবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। এছাড়া নিন্দা জানিয়েছেন অন্যান্য বিশ্বনেতারা।
হামাস বলেছে, ট্রাম্প বাইতুল মোকাদ্দাসকে দখলদার ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে ফিলিস্তিনি জাতির প্রতি প্রকাশ্য শত্রুতা শুরু করেছেন। ট্রাম্পের এই ঘোষণার বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ জানানোর জন্য ফিলিস্তিনি জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে হামাস।

জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী ঘোষণা করে ট্রাম্প মধ্যপ্রাচ্যে যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন বলে সতর্ক করেছেন যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত শীর্ষ ফিলিস্তিনি কূটনীতিক ম্যানুয়েল হাসাসিয়ান। তিনি বলেন, এই ঘটনা মধ্যপ্রাচ্যের শান্তি প্রক্রিয়ায় মরণ কামড় বসানোর সামিল। বিবিসিকে দেওয়া সাক্ষাতকারে ম্যানুয়েল বলেন, ট্রাম্প যদি বলেন যে জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী করতে চান, তবে সেটা হবে দুই রাষ্ট্র সমাধানের পথে ‘মরণ কামড়’।

এই ঘোষণার মাধ্যমে ট্রাম্প মধ্যপ্রাচ্যে যুদ্ধ ঘোষণা করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, দেড়শ কোটি মুসলিমের বিরুদ্ধে তিনি যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন। বিশ্বের কোটি কোটি খ্রিষ্টানও তাদের পবিত্র স্থান ইসরায়েলের হাতে তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত মেনে নিবে না। ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের উপদেষ্টাও মাহমুদ হাবাস একই কথা বলেছেন, তিনি বলেন, ট্রাম্প জেরুজালেমকে রাজধানী ঘোষণায় শান্তি প্রক্রিয়া ধ্বংস হয়ে যাবে।

আব্বাসের উপস্থিতিতে তিনি বলেন, জেরুজালেমের এই পরিবর্তনে ‘বিশ্বকে মূল্য’ দিতে হবে। এছাড়া ট্রাম্পের ঘোষণার কঠোর নিন্দা জানিয়েছে ইরান। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বুধবার রাতে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে ট্রাম্পের এ ঘোষণাকে আন্তর্জাতিক আইনের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন বলে উল্লেখ করেছে।

/এমএইচ/বিএ/

x