মুসলিম এমপিদের কাছে বিদ্বেষমূলক চিঠি পাঠানোর নিন্দায় থেরেসা মে

বিদেশ ডেস্ক ২৩:১৬ , মার্চ ১৪ , ২০১৮

যুক্তরাজ্যে মুসলিম এমপিদের বিদ্বেষমূলক চিঠি পাঠানোর নিন্দা জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। বুধবার পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউস অব কমন্সে প্রধানমন্ত্রীর নির্ধারিত সাপ্তাহিক প্রশ্নোত্তর পর্বে তিনি এ বিষয়ে কথা বলেন। থেরেসা মে বলেন, মুসলিম এমপিদের কাছে সন্দেহজনক প্যাকেট পাঠানোর যে খবর এসেছে। আমি নিশ্চিত এই অগ্রহণযোগ্য ও ঘৃণ্য আচরণের নিন্দায় পুরো পার্লামেন্ট আমার সঙ্গে যোগ দেবে। ব্রিটিশ সমাজে এসবের কোনও ঠাঁই নেই।

থেরেসা মেব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বলেন, এ ঘটনায় তদন্ত প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। অপরাধীদের বিচারের মুখোমুখি করার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

যুক্তরাজ্যের চারজন মুসলিম এমপি ওই চিঠি পেয়েছেন। এরমধ্যে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত দুই এমপি রুশনারা আলী এবং রুপা হকও রযেছেন। ব্রিটিশ উগ্রপন্থীরা ৩ এপ্রিলকে ‘পানিশ অ্যা মুসলিম ডে’ ঘোষণা করে এসব বিদ্বেষপ্রসূত চিঠি পাঠিয়েছে। চিঠিতে রহস্যময় আঠালো তরলের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে।

এ ঘটনাকে ‘অপ্রীতিকর অভিজ্ঞতা’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন পূর্ব লন্ডনের বেথনাল গ্রিন অ্যান্ড বো আসনের এমপি রুশনারা আলী। বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আরেক ব্রিটিশ এমপি রূপা হকের ভাষায় এটি ছিল একটা ‘ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা’। তাদের দুইজনই ওয়েস্টমিনস্টারে নিজেদের পার্লামেন্টারি অফিসে ওই চিঠির প্যাকেটগুলো পান। রূপা হকের একজন স্টাফ ওই চিঠির প্যাকেট খুলেছিলেন। সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে তাকে হাসপাতালে পাঠানো হয়।

লন্ডনের ইলিং সেন্ট্রাল অ্যান্ড অ্যাকটন আসন থেকে নির্বাচিত বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ এমপি রূপা হক বলেন, যে স্টাফকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছিল ইতোমধ্যে সেখান থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে। এখানে একটি নির্দিষ্ট প্যাটার্ন আছে... মুসলিম এমপিদের এমন ঘটনার মুখোমুখি হওয়া কোনওভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

এরইমধ্যে যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন শহরে এমন মুসলিমবিদ্বেষী চিঠি ছড়িয়ে পড়েছে। একই ধরনের চিঠি দিয়ে প্রচারণা চলছে অনলাইনেও। এ নিয়ে যুক্তরাজ্যজুড়ে সংখ্যালঘু মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে। প্রেরিত চিঠিকে ‘বিদ্বেষের প্রতিনিধি’ বলে আখ্যা দিয়েছে পুলিশ। এরইমধ্যে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে তাদের সন্ত্রাসবিরোধী ইউনিট। মুসলিমবিদ্বেষ পর্যবেক্ষণে নিয়োজিত একটি সংস্থার দাবি, এর সঙ্গে স্থানীয় একটি চিঠি-পার্সেল আদান-প্রদান সংক্রান্ত প্রতিষ্ঠানের সংযোগ রয়েছে।

৩ এপ্রিলকে ‘পানিশ অ্যা মুসলিম ডে’ ঘোষণা করে বিদ্বেষপ্রসূত চিঠিটি ছাড়া হয়েছে। ইংল্যান্ডের লন্ডন, ইয়র্কশায়ার ও মিডল্যান্ড এলাকার বাসিন্দারা এ ধরনের চিঠি পাওয়ার কথা জানিয়েছেন। অনলাইনে একই ধরনের একটি চিঠি ছড়ানো হয়েছে এ-ফোর সাইজ কাগজের ছবিতে। ছড়িয়ে পড়া চিঠিতে মুসলিম সম্প্রদায়ের ওপর মৌখিক আক্রমণ, নারীর হিজাব খুলে ফেলা, শারীরিক আঘাত, মসজিদে হামলা ও অস্ত্র হিসেবে এসিড ব্যবহারের মাধ্যমে সহিংসতা ঘটানোর আহ্বান জানানো হয়েছে। পয়েন্ট দিয়ে এসব কর্মকাণ্ডের পর্যায়ক্রমিক তালিকা তৈরি করে চিঠিতে বলা হয়েছে, সহিংসতায় অংশ নিলে পুরস্কারের ব্যবস্থা থাকবে।

অনলাইনে ছড়িয়ে পড়া চিঠিতে পূর্ববর্তী বেশ কিছু মুসলিমবিরোধী বিদ্বেষমূলক কর্মকাণ্ডের বিবরণ হাজির করা হয়েছে। কেন এসব কর্মকাণ্ড সংঘটিত হয়েছে, তার ব্যাখ্যাও জুড়ে দেওয়া হয়েছে এতে।

/এমপি/

x