বাংলাদেশের রোহিঙ্গা শিবিরে প্রতিদিন জন্ম নেয় ৬০ শিশু: ইউনিসেফ

বিদেশ ডেস্ক ১২:১৭ , মে ১৭ , ২০১৮

জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফ জানিয়েছে, বাংলাদেশের রোহিঙ্গা শিবিরগুলোতে প্রতিদিন প্রায় ৬০ শিশু জন্মগ্রহণ করছে। বুধবার সংস্থাটির এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়। ২০১৭ সালের আগস্টে মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের ওপর জাতিগত নিধনযজ্ঞের ভয়াবহতায় এ সম্প্রদায়ের মানুষের বাংলাদেশমুখী স্রোত তৈরি হয়। জীবন ও সম্ভ্রম বাঁচাতে বাংলাদেশে পালিয়ে আসেন প্রায় সাত লাখ মানুষ। ইউনিসেফের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, কক্সবাজারে তখন রোহিঙ্গা ঢল শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত ১৬ হাজার শিশুর জন্ম হয়েছে। এর মধ্যে স্বাস্থ্যকেন্দ্রে জন্ম হয়েছে মাত্র তিন হাজার শিশুর।

বাংলাদেশে নিযুক্ত ইউনিসেফের প্রতিনিধি এডওয়ার্ড বেগবেদার বলেন, প্রতিদিন প্রায় ৬০টি শিশু ভয়ঙ্কর পরিবেশের মধ্য দিয়ে দুনিয়ার মুখ দেখছে। পৃথিবীতে তারা প্রথম শ্বাস নিচ্ছে নিজেদের বাড়িঘর থেকে বহু দূরে ভয়াবহ এক পরিস্থিতির মধ্যে। তাদের মায়েরা সহিংসতা আর আতঙ্কের ভয়াবহতায় বাস্তুচ্যুত হয়ে এখানে এসেছেন। অনেকে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন।

ইউনিসেফের এই কর্মকর্তা বলেন, ধর্ষণের কারণে কত শিশুর জন্ম হয়েছে বা হবে সেই সংখ্যা খুঁজে বের করা সম্ভব নয়। তার ভাষায়, ‘নতুন করে মা হয়েছেন বা হতে যাচ্ছেন- এমন প্রতিটি নারী এবং তাদের নবজাতক শিশুরা যেন প্রয়োজনীয় সব রকম সহায়তা পায়, তা নিশ্চিত করা জরুরি।’

যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম রয়টার্সের প্রতিবেদনে বাংলাদেশের একজন কর্মকর্তার বরাত দিয়ে  বলা হয়েছে, রোহিঙ্গা শিবিরে ১৮ হাজার ৩০০ জন গর্ভবতী নারীকে শনাক্ত করা হয়েছে। তবে তার ধারণা, সব মিলিয়ে সেখানে এমন ২৫ হাজার নারী রয়েছেন।

২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে জাতিগত নিধনযজ্ঞ শুরুর পর থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসাদের মধ্যে একটা বড় অংশই নারী। জীবন ও সম্ভ্রম বাঁচাতে পালিয়ে গর্ভবতী অবস্থায় দেশ ছেড়ে পালিয়ে এসেছেন তারা।

/এমপি/চেক-এমওএফ/

x