ব্রিটিশ এমপিদের কাছে মুসলিমবিদ্বেষী চিঠি, গ্রেফতার ১

অদিতি খান্না, যুক্তরাজ্য ২০:২৮ , জুন ১৩ , ২০১৮

ব্রিটিশ এমপিদের কাছে মুসলিমবিদ্বেষী চিঠি পাঠানোর ঘটনায় এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে দেশটির পুলিশ। ৩৫ বছরের ওই ব্যক্তি বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ এমপি রুশনারা আলী এবং রূপা হকসহ দেশটির উল্লেখযোগ্য সংখ্যক এমপির কাছে ওই চিঠি পাঠিয়েছিলেন।

হত্যার ষড়যন্ত্র, ক্ষতিকারক পদার্থ পাঠানো এবং ‘পানিশ আ মুসলিম ডে’ শিরোনামে বেনামি চিঠি পাঠানোর দায়ে মঙ্গলবার তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সিটিপি এনই এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, লিংকনশায়ার পুলিশের সহায়তায়  নর্থ ইস্ট (সিটিপি এনই)-এর সন্ত্রাসবিরোধী কর্মকর্তারা ৩৫ বছরের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে। আক্রমণাত্মক যোগাযোগ সংক্রান্ত চলমান একটি চলমান তদন্তের ভিত্তিতে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আমরা সম্প্রদায়গুলোকে আশ্বস্ত করতে চাই যে, এই কার্যক্রম একটি চলমান তদন্তের ফলাফল। এটি কোনও তাৎক্ষণিক হুমকির প্রতিক্রিয়া নয়।

ইস্ট  লন্ডনের বেথনাল গ্রিন অ্যান্ড বো আসনের এমপি রুশনারা আলী এই বিষয়টিকে ‘অপ্রীতিকর অভিজ্ঞতা’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন। আরেক এমপি রূপা হকের ভাষায়, এটি একটি ‘ভীতিকর অভিজ্ঞতা’।

এর আগে এ বছরের গোড়ার দিকে একই ধরনের প্রচারণা শুরু হয়েছিল। ওই সময়ে যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন শহরে মুসলিমবিদ্বেষী চিঠি ছড়িয়ে পড়ে। একই ধরনের চিঠি দিয়ে প্রচারণা চালানো হয় অনলাইনেও। চিঠিতে ৩ এপ্রিল তারিখকে ‘পানিশ আ মুসলিম ডে’ আখ্যায়িত করে দিনটিতে মুসলিম সম্প্রদায়ের ওপর বিভিন্ন ধরনের হামলা ও নিপীড়নের আহ্বান জানানো হয়। এ নিয়ে যুক্তরাজ্যজুড়ে সংখ্যালঘু মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। প্রেরিত চিঠিকে ‘বিদ্বেষের প্রতিনিধি’ বলে আখ্যা দেয় পুলিশ। মুসলিমবিদ্বেষ পর্যবেক্ষণে নিয়োজিত একটি সংস্থা বলছে, এর সঙ্গে স্থানীয় একটি চিঠি-পার্সেল আদান-প্রদান সংক্রান্ত প্রতিষ্ঠানের সংযোগ রয়েছে।

ইংল্যান্ডের লন্ডন, ইয়র্কশায়ার ও মিডল্যান্ড এলাকার বাসিন্দারা এ ধরনের চিঠি পাওয়ার কথা জানিয়েছেন। অনলাইনে একই ধরনের একটি চিঠি ছড়ানো হয়েছে এ-ফোর সাইজ কাগজের ছবিতে। ছড়িয়ে পড়া চিঠিতে মুসলিম সম্প্রদায়ের ওপর মৌখিক আক্রমণ, নারীর হিজাব খুলে ফেলা, শারীরিক আঘাত, মসজিদে হামলা ও অস্ত্র হিসেবে এসিড ব্যবহারের মাধ্যমে সহিংসতা ঘটানোর আহ্বান জানানো হয়েছে। পয়েন্ট দিয়ে এসব কর্মকাণ্ডের পর্যায়ক্রমিক তালিকা তৈরি করে চিঠিতে বলা হয়েছে, সহিংসতায় অংশ নিলে পুরস্কারের ব্যবস্থা থাকবে।

অনলাইনে ছড়িয়ে পড়া চিঠিতে পূর্ববর্তী বেশ কিছু মুসলিমবিরোধী বিদ্বেষমূলক কর্মকাণ্ডের বিবরণ হাজির করা হয়েছে। কেন এসব কর্মকাণ্ড সংঘটিত হয়েছে, তার ব্যাখ্যাও জুড়ে দেওয়া হয়েছে এতে।

পুলিশ তখন বলেছিল, তাদের কাছে এ ধরনের বেশ কয়েকটি চিঠি রয়েছে। এগুলো বিশ্লেষণের মাধ্যমে উৎস জানার চেষ্টা চলছে। কাউন্টার টেরোরিজম পুলিশ এই চিঠিকে সম্ভাব্য ঘৃণাবাদী কর্মকাণ্ড বলে বিবেচনা করছে। এরমধ্যেই নতুন করে ‘পানিশ আ মুসলিম ডে’ শিরোনামে বেনামি চিঠি পাঠানোর ঘটনা ঘটেছে।

/এমপি/

x