উদ্ধার হওয়া কিশোরদের দেশের স্বার্থে কাজ করার আহ্বান

বিদেশ ডেস্ক ১৬:০৬ , জুলাই ১২ , ২০১৮

দেশের মঙ্গলে নিজেদের উৎসর্গ করতে থাই কিশোরদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সে দেশের নৌ-বাহিনী প্রধান রিয়াল অ্যাডমিরাল আপাকর্ন ইউকংকেও।  জীবনীশক্তিকে কাজে লাগিয়ে  তাদেরকে শুভ আর মঙ্গলের পথে পরিচালিত হওয়ার তাগিদ দিয়েছেন তিনি।
উদ্ধার হওয়া থাই কিশোররা, ছবি আল-জাজিরা

গত ২৩ জুন ফুটবল অনুশীলন শেষে ২৫ বছর বয়সী কোচসহ ওই ১২ কিশোর ফুটবলার থাম লুয়াং  চিংরাই প্রদেশের গুহাটির ভেতরে ঘুরতে গিয়েছিল। কিন্তু বৃষ্টিতে গুহার প্রবেশমুখ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তারা আটকা পড়ে। টানা ৯ দিন নিখোঁজ থাকার পর গত ২ জুলাই গুহার ভেতরে জীবিত অবস্থায় ১২ কিশোর ফুটবলারসহ তাদের কোচকে শনাক্ত করেন ডুবুরিরা। রবিবার (৮ জুলাই) থাইল্যান্ড সরকার তাদের উদ্ধারে দেশি-বিদেশি বিশেষজ্ঞদের নিয়ে স্মরণকালের সবচেয়ে বড় উদ্ধার অভিযান শুরু করে। ৩ দিনের সফল অভিযানের মধ্য দিয়ে সবাইকে বের করে আনা হয়।

উদ্ধার অভিযান পরিচালিত হয় থ্যাইল্যন্ডের নৌবাহিনীর তত্ত্বাবধানে। থাই নেভি সিল সদস্যদের ১৩ জন বিদেশি ডুবুরি অভিযানে অংশ নেন। নৌ-বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তা আপাকর্ন উদ্ধার হওয়া কিশোরদের উদ্দেশে বলেন, ‘যতোটা পার, জীবনীশক্তিকে কাজে লাগাও। ভালো মানুষ হয়ে ওঠো, দেশের মঙ্গল আর শুভ’র পক্ষের শক্তি হয়ে ওঠো।’ নেভি সিল থেকে প্রকাশিত উদ্ধার অভিযানের ভিডিওতে রোমহর্ষক দৃশ্যে বিস্মিত হয়েছে বিশ্ব। শিশুরা সাতার না কেটে একদম নিশ্চুপ হয়ে শুয়ে ছিল। তাদের বহন করে এনেছেন ডুবুরিরা, হাসপাতালে নেওয়ার জন্য তুলে দিয়েছেন স্ট্রেচারে।  চিংরাই ত্যাগের আগে নৌবাহিনী সদস্যদর উদ্বুদ্ধ করতে ঐতিহ্যগত শব্দ ‘হুয়াহ’ বলে চিৎকার করে ওঠে।

বর্তমানে চিংরাই প্রদেশের প্রচনুক্রোহ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন উদ্ধারকৃত ১২ কিশোর ও তাদের কোচ। স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানান, কিশোরদের অন্তত এক সপ্তাহ হাসপতালে থাকতে হবে এবং ৩০ দিন বাড়িতে বিশ্রাম করতে হবে। উদ্ধার হওয়ার পর বৃহস্পতিবার প্রথমবারের মতো ভিডিওর মাধ্যমে শুভেচ্ছা জানায় কিশোররা। হাসপাতালের বিছানায় শুয়েই এক ভিডিওতে হাত নেড়ে অভিবাদন জানায় তারা। এক সংবাদ সম্মেলনে হাসপাতালের পরিচালক থানাপাইসাল বলেন, তারা সবাই সুস্থ আছেন। বিশেষ করে যারা শেষে ভর্তি হয়েছেন তারা তাড়াতাড়ি সুস্থ হচ্ছেন। পরিবারের সদস্যরাও তাদের সঙ্গে দেখা করতে পারছেন।

দেশটির উপপ্রধানমন্ত্রী প্রাভিত ওংসুয়ান উদ্ধার অভিযানের প্রশংসা করে বলেছেন, এটা কোনও অলৌকিক ঘটনা না। এদিকে বহুল আলোচিত ওই ‘থাম লুয়াং’ গুহাকে জাদুঘরে পরিণত করা হবে বলে জানিয়েছে দেশটির সরকার। তবে আগামী ছয় মাস বন্ধ থাকবে গুহাটি।

 

/এমএইচ /বিএ/

x