গজনি শহরের কিছু অংশ দখলে নিয়েছে আফগান তালেবান, সংঘর্ষ চলছে

বিদেশ ডেস্ক ১২:৫০ , আগস্ট ১০ , ২০১৮

ভারী অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে আফগানিস্তানের মধ্যাঞ্চলীয় গজনি শহরে হামলা চালিয়েছে তালেবান সদস্যরা। বিভিন্ন ঘর-বাড়ি ও বাণিজ্যিক এলাকায় শেল হামলা চালাচ্ছে তারা। দখলে নিয়েছে শহরের কিছু অংশ। বৃহস্পতিবার (৯ আগস্ট) দিনগত রাত থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত আফগান বাহিনী ও তালেবান সদস্যদের মধ্যে সংঘর্ষ চলছে। আতঙ্কে ঘর-বাড়ি থেকে বের হতে পারছে না স্থানীয়রা। দক্ষিণাঞ্চলীয় আফগানিস্তানের সঙ্গে কাবুলের সড়কটি বন্ধ রয়েছে। তালেবানের দাবি, এ ঘটনায় অনেক প্রাণহানি হয়েছে। তবে আফগান কর্তৃপক্ষ প্রাণহানির খবর নিশ্চিত করতে পারেনি। আফগান কর্তৃপক্ষকে উদ্ধৃত করে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স খবরটি জানিয়েছে।

আফগানিস্তানের গজনিতে হামলা চালিয়েছে তালেবান
আসন্ন ঈদ উল আযহা উপলক্ষে তালেবানের সঙ্গে আফগান কর্তৃপক্ষের অস্ত্রবিরতি হতে পারে বলে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিলো। এর মধ্যেই বৃহস্পতিবার (৯ আগস্ট) রাতে ভারী অস্ত্র নিয়ে গজনি প্রদেশে হামলা চালিয়ে তালেবান।

আফগান কর্মকর্তাদের উদ্ধৃত করে রয়টার্স জানায়, রাতভর সরকারি বাহিনী ও তালেবান সদস্যদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এক পর্যায়ে কাবুলের সঙ্গে গজনিকে সংযোগকারী হাইওয়েটি বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয় কর্তৃপক্ষ। গজনির এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলেন, ‘তালেবান সদস্যরা আবাসিক ও বাণিজ্যিক এলাকার কাছে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাচ্ছে। গত আট ঘণ্টায় এক মিনিটের জন্যও শোরগোল থামেনি।’

আরেক সরকারি কর্মকর্তা বলেন, মানুষের ঘর থেকে বের হওয়াটা বিপজ্জনক হয়ে পড়েছে। তবে কোনও প্রাণহানি হয়েছে কিনা তা তার কাছ থেকে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তিনি বলেন, ‘আহতদের সহায়তা দিতে কিংবা মৃতদেহ উদ্ধারে ঘর থেকে রাস্তায় বের হয়ে আসা সম্ভব নয়।’

তালেবানের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ দাবি করেছেন, শহরের কিছু অংশ তালেবান দখলে নিয়েছে এবং অনেক প্রাণহানি হয়েছে। 

নাইন ইলেভেনের হামলার পর ২০০১ সালে তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশের নির্দেশে আফগানিস্তানে মার্কিন অভিযান শুরু হয়। কিন্তু ১৭ বছরেও তারা লক্ষ্য অর্জনে ব্যর্থ হয়েছে। আনুষ্ঠানিকভাবে ২০১৪ সালে আফগান তালেবানের বিরুদ্ধে ওই যুদ্ধ শেষ হলেও যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ বাহিনী এখনও সেখানে রয়ে গেছে। মার্কিন কর্তৃপক্ষের দাবি আফগান সেনাদের সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে তাদের সেনারা। গত জানুয়ারিতে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি’র এক জরিপে বলা হয়,আফগানিস্তানের প্রায় ৭০ ভাগ এলাকায় তালেবানদের তৎপরতা রয়েছে। থেমেই থেমেই আফগানিস্তানের বিভিন্ন স্থান লক্ষ্য করে হামলা চালিয়ে থাকে তালেবান।

/এফইউ/

x