ট্রাম্প প্রশাসন আমাকে মেরে ফেলতে চাইছে: মাদুরো

বিদেশ ডেস্ক ২১:৪৪ , অক্টোবর ১২ , ২০১৮

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে হত্যা পরিকল্পনার অভিযোগ করেছেন ভেনিজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো। বৃহস্পতিবার রাতে টেলিভিশনে দেওয়া এক বক্তব্যে তিনি এমন অভিযোগ করেন। মাদুরো বলেন, আমাকে হত্যার পরিকল্পনা করছে ট্রাম্প প্রশাসন। তারা আমাকে খুন করে ফেলতে চায়। কলম্বিয়া সরকারকেও তারা এ ব্যাপারে নির্দেশনা দিয়েছে। তবে তাদের এ পরিকল্পনা ব্যর্থ হবে। তারা কিছুই করতে পারবে না, এমনকি চুলও স্পর্শ করতে পারবে না।

নিজের অভিযোগের স্বপক্ষে অবশ্য কোনও প্রমাণ দেননি ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট। তবে সাংবাদিকদের কাছে এ ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন হোয়াইট হাউসের জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলের একজন মুখপাত্র। তিনি বলেন, ভেনেজুয়েলায় শান্তিপূর্ণ উপায়ে গণতান্ত্রিক প্রত্যাবর্তনে যুক্তরাষ্ট্রের নীতি অপরিবর্তিত রয়েছে।

ভেনেজুয়েলার বিরোধী দলগুলো বলছে, মাদুরো তার নিজের অযোগ্যতা ঢাকতে উল্টো শত্রুদের বিরুদ্ধে হাস্যকর অভিযোগ তুলছেন।

মাদুরোকে স্বৈরশাসক হিসেবে আখ্যায়িত করে যুক্তরাষ্ট্র। নিজ দেশে মানবাধিকার লঙ্ঘন ও অর্থনৈতিক মন্দার জন্যও তাকে দায়ী করে আসছে ট্রাম্প প্রশাসন। দেশটির ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞাও বলবৎ রয়েছে।

গত সেপ্টেম্বরে জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনের বিতর্কপর্বে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে সোচ্চার অবস্থান নেন মাদুরো। নিজের ভাষণে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ভেনেজুয়েলার সরকার উৎখাত ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তোলেন। মাদুরো বলেন, ‘কতিপয় শাসকগোষ্ঠী মহাদেশের ওপর শাসন চালাচ্ছে এবং তাদের পরিচালনা করছে ওয়াশিংটন। এসব শাসকগোষ্ঠী ভেনেজুয়েলার ওপর রাজনৈতিক নিয়ন্ত্রণ আরোপ করতে চায়। কিন্তু ভেনেজুয়েলা শক্ত অবস্থানে দাঁড়িয়ে আছে এবং একে দুর্বল করা যাবে না।’

গত ৪ আগস্ট কারাকাসে ড্রোন হামলা চালিয়ে তাকে হত্যার পরিকল্পনার পেছনেও যুক্তরাষ্ট্রের হাত রয়েছে বলে ধারাবাহিকভাবে অভিযোগ করে আসছেন মাদুরো। তার দাবি, যুক্তরাষ্ট্রের ভূখণ্ড থেকেই এর জন্য অর্থায়ন করা হয়েছে। মাদুরো বলেন, ভেনেজুয়েলা সরকারের তদন্তে দেখা গেছে, এ হামলায় লাতিন আমেরিকা ও ক্যারিবীয় দেশের কয়েকজন কূটনীতিক সহযোগিতা করেছিলেন। সূত্র: রয়টার্স।

/এমপি/

x