প্রচারণায় নায়ক ফেরদৌস: তৃণমূলের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে বিজেপির অভিযোগ

রঞ্জন বসু, দিল্লি প্রতিনিধি ১৬:২৭ , এপ্রিল ১৬ , ২০১৯

নির্বাচনি প্রচারণায় বাংলাদেশের জনপ্রিয় চিত্রনায়ক ফেরদৌসকে ব্যবহার করায় তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে ক্ষুব্ধ বিজেপি। রায়গঞ্জ লোকসভা আসনে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী কানাইয়ালাল আগরওয়ালের পক্ষে দুইদিন প্রচারণা করেছেন ফেরদৌস। সোশ্যাল মিডিয়ায় এ সংক্রান্ত ছবিও ছড়িয়ে পড়েছে। প্রচারণায় বিদেশি নাগরিক ব্যবহারকে বিধিবহির্ভূত দাবি করে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ দাখিল করেছে বিজেপি। তবে রায়গঞ্জের প্রার্থী কানাইয়ালাল বলছেন, এ ব্যাপারে তিনি কিছু জানেন না।

রবিবার ও সোমবার (১৪ ও ১৫ এপ্রিল) টানা দুই দিন ধরে পশ্চিমবঙ্গের রায়গঞ্জ লোকসভা আসনের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী কানাইয়ালাল আগরওয়ালের পক্ষে নির্বাচনি প্রচারণায় অংশ নেন চিত্রনায়ক ফেরদৌস। টালিগঞ্জের দুই তারকা অঙ্কুশ ও পায়েল সরকারকে সঙ্গে নিয়ে হুডখোলা গাড়িতে চেপে রোড শো করেছেন তিনি। করণদীঘি, হেমতাবাদ, ইসলামপুর-সহ ওই কেন্দ্রের নানা জায়গায় ফেরদৌসকে একবার চোখের দেখা দেখতে রীতিমতো ভিড়ও উপচে পড়েছিল। তৃণমূল প্রার্থী কানাইয়ালাল আগরওয়ালকে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ফেরদৌস। সেই ছবি ও রোড শো-র ভিডিও ইতোমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায়ও ছড়িয়ে পড়েছে।

একজন বিদেশি নাগরিক কীভাবে ভারতের সাধারণ নির্বাচনের প্রচারণায় অংশ নিতে পারেন, এই প্রশ্ন তুলেছে রাজ্যের বিরোধী দল বিজেপি। তবে কানাইলায়াল আগারওয়ালকে ফোন করে এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বাংলা ট্রিবিউনকে তিনি বলেন, ‘দেখুন আমার পক্ষে কে কোথায় ভোট চাইলো তার কি সব খোঁজ রাখা সম্ভব নাকি? আর সাতদিন বাদে ভোট, আমার এখন নিশ্বাস ফেলার ফুরসত নেই। ফলে কোন ফিল্মস্টার এসে আমার হয়ে ভোট চাইছে সেসব আমার কিছুই জানা নেই।’ গত মাসে কংগ্রেস থেকে তৃণমূলে যোগ দেওয়া ওই প্রার্থী বলেন, ‘আসলে আমি চিরদিনই রাজনীতিতে সংগঠন করা ছেলে। আমি নিজের সংগঠনের ভরসাতেই চিরকাল প্রচার করে এসেছি। বাইরের কোনও তারকার সাহায্য আমার কখনও লাগেনি, এবারেও লাগছে না’।

বিরোধীরা অবশ্য সহজে ছাড়তে চাইছে না। পশ্চিমবঙ্গ বিজেপি’র সাধারণ সম্পাদক প্রতাপ ব্যানার্জি ইতোমধ্যেই এই ঘটনায় নির্বাচন কমিশনের পাশাপাশি রায়গঞ্জে জেলা ম্যাজিস্ট্রেট দফতরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। তারা বলছেন, বিদেশি নাগরিককে দিয়ে ভোটের প্রচার করানো পরিষ্কার ভারতে নির্বাচনি আচরণবিধির (মডেল কোড অব কন্ডাক্ট) লঙ্ঘন। বিজেপি’র রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ ব্যঙ্গ করে বলেছেন, ‘বিদেশি একজন নাগরিককে দিয়ে পশ্চিমবঙ্গে ভোটের প্রচার করিয়ে দিদি (মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি) কী প্রমাণ করতে চাইছেন? বাংলাদেশিদের পর এবার কি তিনি পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে প্রচারে নিয়ে আসতে চান?’

পশ্চিমবঙ্গেও তারকা খ্যাতি রয়েছে ঢাকার চিত্রনায়ক ফেরদৌসের। ভারতের বেশ কয়েকটি বাংলা ও হিন্দি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। বছর দুয়েক আগে তাকে দেখা গেছে সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের ‘ইয়েতি অভিযান’ চলচ্চিত্রে। রাজ্য বিজেপি’র সাধারণ সম্পাদক প্রতাপ ব্যানার্জি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেছেন, ‘আসলে রায়গঞ্জ সংসদীয় আসনে মুসলিম ভোটারের সংখ্যা শতকরা ৫৭ ভাগ, যা সারা রাজ্যের মধ্যে সবচেয়ে বেশি। কেন্দ্রটি বাংলাদেশ লাগোয়াও বটে। ফলে এটা একেবারে পরিষ্কার, সংখ্যালঘু মুসলিম ভোট টানার চেষ্টাতেই তৃণমূল সেখানে বাংলাদেশি ও মুসলিম চিত্রনায়ককে এনে প্রচার করিয়েছে। আমরা এর জন্য তৃণমূলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানাচ্ছি।’

/বিএ/এমওএফ/

x