রাখাইনে রোহিঙ্গাদের জন্য ২৫০টি বাড়ি হস্তান্তর করেছে ভারত

বিদেশ ডেস্ক ১৮:৪৯ , জুলাই ১২ , ২০১৯

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের জন্য নির্মিত ২৫০টি বাড়ি হস্তান্তর করেছে ভারত। দেশটির এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে সহায়তার অংশ হিসেবে এই বাড়িগুলো নির্মাণ করে দেওয়া হয়েছে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে।

২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট কয়েকটি নিরাপত্তা চৌকিতে হামলার পর রাখাইনে পূর্ব-পরিকল্পিত ও কাঠামোবদ্ধ সহিংসতা জোরালো করে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। হত্যা-ধর্ষণসহ বিভিন্ন ধারার সহিংসতা ও নিপীড়ন থেকে বাঁচতে নতুন করে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর প্রায় সাড়ে ৭ লাখ মানুষ। এদের সঙ্গে রয়েছেন ১৯৮২ সাল থেকে নির্যাতনের হাত থেকে বাঁচার জন্যে বাংলাদেশে পালিয়ে আশ্রয় নেওয়া আরও প্রায় ৩ লাখ রোহিঙ্গা। সব মিলে বাংলাদেশে থাকা রোহিঙ্গার সংখ্যা ১০ লাখের বেশি। মিয়ানমারে ফিরলে আবারও নিপীড়নের শিকার হতে পারেন এমন শঙ্কায় রয়েছেন এসব রোহিঙ্গারা।

ভারতের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের শর্ত তৈরি করতে হবে। আর ভারত বাড়ি নির্মাণের মাধ্যমে রাখাইনে আড়াই কোটি মার্কিন ডলারের উন্নয়ন পরিকল্পনা বাস্তবায়ন শুরু করেছে। এই সপ্তাহের শুরুর দিকে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা বাড়িগুলো রাখাইনের সুয়ে জার, কেইন চাং তুং এবং নান্ট থার টং গ্রামে নির্মিত।

তবে অ্যাকটিভিস্টরা বলছেন, মানবাধিকার ইস্যুর সমাধান না হওয়া পর্যন্ত রাখাইনের উন্নয়ন পরিকল্পনা বাস্তবায়নের প্রভাব খুবই সামান্য।

ভারতীয় কর্মকর্তা জানান, মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ দিল্লির কাছে রাখাইনে স্কুল ও বাজার নির্মাণসহ আরও ২১টি উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের তালিকা হস্তান্তর করেছে।

বিগত কয়েক বছরে সামরিক সহায়তাসহ মিয়ানমারের সঙ্গে সম্পর্ক ঘনিষ্ঠ করে চলেছে ভারত। রাখাইনে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযানকে সমর্থন দিয়েছে দিল্লি। দক্ষিণ এশিয়াজুড়ে চীনের ব্যয়বহুল অবকাঠামো প্রকল্প ঠেকাতে ভারত মিয়ানমারের সঙ্গে সম্পর্ক জোরালো করছে বলে মনে করেন বিশ্লেষকরা।

/জেজে/এএ/

x