ইস্টার সানডের হামলার নেপথ্যে আন্তর্জাতিক মাদকচক্র: শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট

বিদেশ ডেস্ক ১৫:১১ , জুলাই ১৬ , ২০১৯

শ্রীলঙ্কায় ইস্টার সানডের দিনে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার জন্য আন্তর্জাতিক মাদকচক্রকে দায়ী করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা সিরিসেনা। তিনি বলেছেন, দেশজুড়ে মাদকবিরোধী অভিযানকে নিরুৎসাহিত করতেই ওই হামলা চালানো হয়েছিল। সোমবার প্রেসিডেন্টের দফতর থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে এমন তথ্য জানান তিনি। শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহের মুখপাত্র অবশ্য প্রেসিডেন্টের বিবৃতি প্রত্যাখ্যান করেছেন। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে তুরস্কভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ডেইলি সাবাহ।

শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট বলেন, আমার সম্মানহানির উদ্দেশ্যেই মাদক সম্রাটরা এ হামলা চালিয়েছে। আমার মাদকবিরোধী অভিযানকে নিরুৎসাহিত করাও এর অন্যতম লক্ষ্য। তবে আমাকে ভয় দেখিয়ে নিবৃত্ত করা যাবে না।

২০১৯ সালের ২১ এপ্রিল শ্রীলঙ্কায় খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের ইস্টার সানডে উদযাপনকালে কয়েকটি গির্জা ও বিলাসবহুল হোটেলে ভয়াবহ ওই সিরিজ বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। এতে নিহত হন অন্তত ২৫৮ জন। পরে হামলার দায় স্বীকার করে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস। তবে নিজেদের দাবির পক্ষে কোনও প্রমাণ দেখাতে পারেনি তারা।

হামলার জন্য শ্রীলঙ্কার কর্তৃপক্ষ ন্যাশনাল তাওহীদ জামাত (এনটিজে) নামের স্থানীয় একটি সংগঠনকে দায়ী করে। সন্দেহভাজন হিসেবে আটক করা হয় শতাধিক মানুষকে। খেলনা ড্রোন, খেলনা ওয়াকিটকি বা হাদিসের বই রাখার কারণেও আটকের ঘটনা ঘটেছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে হামলায় মুসলমানদের দায়ী করে দেশটিতে মুসলিমবিরোধী সহিংসতা মাথাছাড়া দিয়ে উঠে। ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ চালানো হয় মুসলিমদের মালিকানাধীন বিভিন্ন স্থাপনা ও দোকানপাটে।

শ্রীলঙ্কায় মুসলমানদের সংগঠন অল সাইলন জমিয়াতুল উলামা (এসিজেইউ)-এর প্রেসিডেন্ট মুফতি মোহাম্মদ রিজভি বলেন, ‘দুর্ভাগ্যজনকভাবে মুষ্টিমেয় ব্যক্তি বিশেষের হয়রানি ও নিপীড়নমূলক কর্মকাণ্ডের লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হচ্ছে মুসলিম সম্প্রদায়।’

/এমপি/এমওএফ/

x