মালয়েশিয়ার প্রতি কৃতজ্ঞ থাকা উচিত জাকির নায়েকের: আনোয়ার ইব্রাহিম

বিদেশ ডেস্ক ১৬:১৯ , আগস্ট ২১ , ২০১৯

মালয়েশিয়ার প্রতি জাকির নায়েকের কৃতজ্ঞ থাকা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী আনোয়ার ইব্রাহিম। মঙ্গলবার জাকির নায়েককে নিয়ে চলা সাম্প্রতিক বিতর্ক নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, আশ্রয় দেয়ায় মালয়েশিয়াকে ধন্যবাদ দেওয়া উচিত জাকির নায়েকের।

ভারতের আদালতে অর্থপাচার ও ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়ানোর মধ্য দিয়ে জিহাদি কার্যক্রম উদ্বুদ্ধ করার অভিযোগ রয়েছে জাকিরের বিরুদ্ধে। দিল্লির পক্ষ থেকে তাকে ফেরত পাঠানোর আনুষ্ঠানিক আবেদন করা হলে ২০১৮ সালে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ এ ব্যাপারে অনিচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন। তবে সম্প্রতি জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে বর্ণবাদের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় পুলিশি তদন্ত চলছে। তদন্তে অভিযোগের সত্যতা মিললে তার মালয়েশিয়ায় বসবাসের অনুমতি বাতিল করা হতে পারে। ইতোমধ্যে মালয়েশিয়ায় যেকোনও ধরনের সমাবেশে বক্তব্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে তার।

আনোয়ার ইব্রাহিম বলেন, ভারতীয় ও চীনাদের নিয়ে করা জাকির নায়েকের সাম্প্রদায়িক মন্তব্যের সঙ্গে একমত নন। তিনি বলেন, ‘আমি এ বিষয়ে জাকির নায়েকের সঙ্গে একমত নই। তিনি ইসলাম নিয়ে বক্তব্য দেন, সেখানে অনেক ভালো কিছু আছে। কিন্তু দেশের সাম্প্রদায়িক পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলে ঠিক করেননি তিনি।’

সাম্প্রতিক বিতর্ক নিয়ে তার দলের অবস্থানের বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে আনোয়ার ইব্রাহিম বলেন, বুধবার এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

ভারতের আদালতে অর্থপাচার ও ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়ানোর মধ্য দিয়ে জিহাদি কার্যক্রম উদ্বুদ্ধ করার অভিযোগ রয়েছে জাকিরের বিরুদ্ধে। দিল্লির পক্ষ থেকে তাকে ফেরত পাঠানোর আনুষ্ঠানিক আবেদন করা হলে ২০১৮ সালে মাহাথির এ ব্যাপারে অনিচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন। এ বছর জুনের দ্বিতীয় সপ্তাহেও মাহাথির বলেছিলেন, ন্যায়বিচার ক্ষুণ্ন হওয়ার আশঙ্কা থাকলে জাকির নায়েককে ভারতে ফেরত পাঠানো হবে না। তবে জুলাইয়ে টিআরটি ওয়ার্ল্ডের সঙ্গে আলাপকালে ৯৪ বছর বয়সী মাহাথির বলেছেন, ‘আমাদের দেশ মালয়েশিয়ায় ভিন্ন ভিন্ন বর্ণের ও ভিন্ন ভিন্ন ধর্মের মানুষ আছে। আমরা এমন কাউকে চাই না যাদের বর্ণগত সম্পর্ক ও অন্য ধর্ম সম্পর্কে কট্টর চিন্তাভাবনা রয়েছে। তবে জাকির নায়েককে আবার অন্য কোথাও পাঠানো কঠিন। কারণ, অনেক দেশই তাকে রাখতে চায় না।’

/এমএইচ/এমওএফ/

x