তার্কিশের ডানায় ভেসে আকাশে

জনি হক, কান (ফ্রান্স) থেকে ০০:২২ , মে ১৪ , ২০১৯

ঢাকায় তার্কিশ এয়ারলাইনসের উড়োজাহাজআকাশপথে দূরের গন্তব্যে যাতায়াতের বেলায় বিমান সংস্থা নির্ভরযোগ্য ও নিরাপদ হলে নির্ভার লাগে যাত্রীদের। তার্কিশ এয়ারলাইনসকে এদিক দিয়ে অনায়াসে ভরসা করা যায়। বিশ্ব চলচ্চিত্রের সবচেয়ে জমজমাট আয়োজন কান উৎসবের সংবাদ সংগ্রহ করতে এ নিয়ে পঞ্চমবার দক্ষিণ ফরাসি উপকূলের শহরে এলাম। এর মধ্যে চারবারই তার্কিশে উড়োজাহাজে চড়েছি। তাদের স্লোগানটা মনের মতো, ‘ওয়াইডেন ইউর ওয়ার্ল্ড’। 

তুরস্কের এই রাষ্ট্রীয় আকাশসেবা সংস্থা ঢাকা থেকে ইস্তানবুলে প্রতিদিন একটি করে ফ্লাইট পরিচালনা করে। এশিয়া, ইউরোপ, আমেরিকা ও আফ্রিকাসহ ১২৪টি দেশের ৩০৮টি শহরে ৩১১টি গন্তব্যে যাতায়াত করে এটি। এর মধ্যে ৪৯টি অভ্যন্তরীণ ও ২৫৭টি আন্তর্জাতিক গন্তব্য। ১৯৩টি দেশের ১ হাজার ৩১৭টি বিমানবন্দরে প্রতিদিন তাদের ১৮ হাজার ৮০০টি ফ্লাইট চলাচল করে। পৃথিবীর আর কোনও বিমান সংস্থার এত দেশে ফ্লাইট নেই। যাত্রী পরিবহনে তার্কিশ বিশ্বের চতুর্থ বৃহৎ বিমান সংস্থা। যেকোনও এয়ারলাইনের চেয়ে এটি সবচেয়ে বেশি বিরতিহীন সেবা দিয়ে থাকে। তাদের বহরে আছে ৩৩৫টি আকাশযান।

আকাশে তার্কিশ এয়ারলাইনসের ডানাতার্কিশ এয়ারলাইনস বাংলাদেশের সেলস অ্যান্ড ট্রাফিক এজেন্ট এজাজ কাদরি জানালেন, ২০২৩ সালের মধ্যে তাদের বহরের আকাশযানের সংখ্যা ৫০০ পেরিয়ে যাবে। তখন মুনাফা হবে ৩০০ কোটি মার্কিন ডলার। গত ১৬ বছরে যেকোনও এয়ারলাইনের চেয়ে তিন গুণ যাত্রী বেড়েছে তাদের।

তার্কিশ এয়ারলাইনসে ইন-ফ্লাইট এন্টারটেইনমেন্টের মাধ্যমে সেফটি নির্দেশনাবর্তমানে ৩১ হাজার ৫৪৩ জন কর্মরত আছেন তার্কিশ এয়ারলাইনসে। তাদের বাংলাদেশ শাখার জেনারেল ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন এমরাহ কারাচা। তিনি জানান, স্কাইট্র্যাক্সের দৃষ্টিতে ২০১১ থেকে ২০১৬ পর্যন্ত টানা ছয় বছর ইউরোপের সেরা এয়ারলাইনের স্বীকৃতি পায় এই সংস্থা। এছাড়া ২০০৫ সালে স্কাইট্র্যাক্স ওয়ার্ল্ড এয়ারলাইন অ্যাওয়ার্ডসে দক্ষিণ ইউরোপের সেরা এয়ারলাইন, বিশ্বের সেরা বিজনেস ক্লাস এয়ারলাইন লাউঞ্জ ও পৃথিবীর সেরা বিজনেস লাউঞ্জ ডাইনিং পুরস্কার পায় তারা। কার্গো বিভাগে ২০টি আকাশযানের মাধ্যমে ৮২টি গন্তব্যে মালামাল আনা-নেওয়া করে তার্কিশ। স্টার অ্যালায়েন্সের গর্বিত সদস্য এই সংস্থা।

তার্কিশ এয়ারলাইনসের উড়োজাহাজএবারের যাত্রায় হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বোর্ডিং পাস নেওয়ার সময় অনুরোধ করে জানালার পাশের আসন নিয়েছি। তার্কিশের ফ্লাইটগুলোর উড্ডয়ন ও অবতরণ বেশ স্বাচ্ছন্দ্যময়। ফ্লাইট অ্যাটেনড্যান্টরা সহযোগিতাপ্রবণ। তাদের সেবা পাওয়ার ফাঁকে ফাঁকে জানালায় চোখ রেখে উপভোগ করছিলাম সাদা মেঘের তুলো, অপার নীল আকাশ, বিস্তীর্ণ সাগর, পাহাড়সারিসহ অনেক কিছু। ৩০ হাজার ফুট ওপরে একবার স্ক্রিনে ভেসে উঠলো, বাইরে তখন মাইনাস ৫৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস!

২০১৮ সালে তার্কিশ এয়ারলাইনসের পথচলার ৮৫ বছর পূর্তি হয়েছে। ১৯৩৩ সালে মাত্র একটি উড়োজাহাজ নিয়ে যাত্রা শুরু করে এই সংস্থা। তখন ইস্তানবুল, ইজমির, আনকারা ও আদানা— এই চারটি গন্তব্যে ছিল তাদের ফ্লাইট। ২০০৩ সালে তা দাঁড়ায় ৫৫ দেশের ১০৩টি গন্তব্য।

রানওয়েতে তার্কিশ এয়ারলাইনসের ডানাএ উপলক্ষে নতুন ইউনিফর্ম দেওয়া হয় কেবিন ক্রুদের। এগুলো দেখতে জাঁকালো। চাকচিক্যের কোনও কমতি নেই। আভিজাত্যের ছটাও আছে। এককথায় তার্কিশ এয়ারলাইনসের ফ্লাইট অ্যাটেনড্যান্টদের পোশাক মুগ্ধতা ছড়ায়। এগুলো ডিজাইন করেছেন ইতালির মিলানের ফ্যাশন ডিজাইনার ইত্তোরে বিলোত্তা। সম্প্রতি সিএনএনকে তিনি বলেন, ‘শতাব্দী ধরে শিল্প ও সভ্যতার ধারক হয়ে দাঁড়িয়ে আছে ইস্তানবুল। বৈচিত্র্যময় সংস্কৃতিতে সমৃদ্ধ এই শহর। প্রাচ্য ও পাশ্চাত্যে প্রভাবিত তুরস্ক ও ইস্তানবুলের শহুরে উদ্দীপনাকে উদযাপন করতে ইউনিফর্মে লাল ও ধূসর রঙের সম্মিলন ঘটানো হয়েছে।’

তার্কিশ এয়ারলাইনসের ইকোনমি ক্লাসের খাবারতার্কিশের সৌজন্য খাবার বেশ উপভোগ্য। ইস্তানবুল যাওয়ার পথে ইকোনমি আসনে দু’বার খেতে দেওয়া হলো। ইন-ফ্লাইট এন্টারটেইনমেন্ট উপভোগের ফাঁকে মোটামুটি কিছুটা সময় ভোজনরসিক বনে গেলাম! আকাশপথে সুস্বাদু খাবারের সঙ্গে চাইতেই মিললো রেড ওয়াইন। জেনে নিন, প্যাসিফিক এরিয়া ট্রাভেল রাইটার অ্যাসোসিয়েশনের দৃষ্টিতে ‘বেস্ট এয়ারলাইনস-বেস্ট ইনফ্লাইট ক্যাটারিং’ পুরস্কার আছে তাদের ঝুলিতে।

যাত্রীরা তার্কিশের উড়োজাহাজে হলিউডের পুরস্কারজয়ী, ব্লকবাস্টার ও সদ্য মুক্তিপ্রাপ্ত ছবিসহ বলিউডের ব্লকবাস্টার চলচ্চিত্রগুলো উপভোগ করতে পারেন বিভিন্ন ভাষায়। এই আকাশসেবা প্রতিষ্ঠানের ইন-ফ্লাইট বিনোদন প্ল্যাটফর্মে গানের অভাব নেই! গান-বাজনার বিশাল সম্ভার।

নিস বিমানবন্দরের রানওয়েতে তার্কিশ এয়ারলাইনসের উড়োজাহাজউড়োজাহাজের নিরাপত্তাজনিত বিভিন্ন দিক-নির্দেশনা দেওয়ার ক্ষেত্রে অভিনবত্ব দেখিয়েছে তার্কিশ এয়ারলাইনস। হলিউডের ‘লেগো মুভি’র চরিত্রগুলোর মাধ্যমে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রেক্ষাপটে ইমার্জেন্সি এক্সিট, সিট বেল্ট, মোবাইল ফোন ফ্লাইট মুডে দেওয়া, ওভারহেড বিনে ও আসনের ঠিক নিচে যত্ন করে লাগেজ রাখার টিপসসহ বিভিন্ন তথ্য সিনেমার ঢঙে উপস্থাপন করা হয়েছে। এক্ষেত্রে নেতৃত্ব দিচ্ছে ব্যাটম্যান! ইন-ফ্লাইট এন্টারটেইনমেন্টের অন্যতম আকর্ষণ হলিউডের খ্যাতিমান নির্মাতা রিডলি স্কট পরিচালিত ‘দ্য জার্নি’ নামের প্রামাণ্যচিত্র। এর শুটিং হয়েছে ইস্তানবুলে। এতে অভিনয় করেছেন ‘ব্লেড রানার ২০৪৯’ ছবির অভিনেত্রী সিলভিয়া হোকস। মোবাইল ফোনে তার্কিশের অ্যাপ ডাউনলোড করে নিলে এমন আরও অনেক তথ্য পাওয়া যাবে।

তার্কিশ এয়ারলাইনসের উড়োজাহাজে লেখকতার্কিশ এয়ারলাইনসের ডানায় চড়ে ইস্তানবুল বিমানবন্দরে পৌঁছালাম। আগের চারবারের তিনবার এই সংস্থার বিমানে করে ইস্তানবুল আতাতুর্ক বিমানবন্দর থেকে সংযোগ ফ্লাইটে উঠে নিসে গিয়েছিলাম। সেখানে প্রতি বছর ৬ কোটি ৪০ লাখ যাত্রী যাতায়াত করতো। ফলে বিমানবন্দরটি ছিল কর্মব্যস্ত। ১৭৫টি দেশের আড়াই হাজারেরও বেশি বিমানবন্দরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী এ তথ্য উঠে আসে বার্ষিক ওয়ার্ল্ড এয়ারপোর্ট ট্রাফিক রিপোর্টে।
ছবি: লেখক

/জেএইচ/

x