ভিয়েতনামে পর্যটকদের জন্য হেলিকপ্টার ফ্লাইট

জার্নি ডেস্ক ১২:০০ , জুন ১৩ , ২০১৯

ভিয়েতনামে যাওয়া বেশিরভাগ পর্যটক অপূর্ব হালং বে’র জলের ওপর নৌ-যানে ভেসে বেড়ান। এবার আকাশে উড়ে সেখানকার নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করা যাবে। ভ্রমণপিপাসুদের জন্য নর্দার্ন ভিয়েতনাম হেলিকপ্টার কোম্পানি চালু করেছে বেশ কয়েকটি পর্যটন ফ্লাইট। এটি হলো ভিয়েতনাম হেলিকপ্টার করপোরেশনের সহযোগী প্রতিষ্ঠান।

জানা গেছে, হেলিকপ্টারে তিনটি ভিন্ন প্যাকেজে হালং বে এলাকা দেখা যাচ্ছে। সবচেয়ে সস্তা হলো ১২ মিনিটের ট্যুর। এর ভাড়া জনপ্রতি ১২৫ মার্কিন ডলার (১১ হাজার টাকা)। এই প্যাকেজে ছয়টি পর্যটন স্পটের ওপর দিয়ে হেলিকপ্টার উড়বে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য তিয়েন কুঙ গুহা, তিতপ দ্বীপ ও বাই তু লং বে।

হালং বে’র ওপর হেলিকপ্টারসবচেয়ে ব্যয়বহুল ট্যুরের ব্যাপ্তি ৪০ মিনিট। এটি উপভোগের জন্য গুনতে হবে ৩৯৬ মার্কিন ডলার (৩৪ হাজার টাকা)। টাকা বেশি খরচ হলেও হালং বে’র ১৭টি ভিন্ন ভিন্ন স্পট হেলিকপ্টারে বসে দেখার সুযোগ মিলবে।

হালং বে’র ওপর হেলিকপ্টার১৯৯৪ সালে ইউনেস্কোর বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকাভুক্ত হয় হালং বে। ১ হাজার ৬০০টিরও বেশি চুনাপাথরের দ্বীপ আর ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র দ্বীপের সমন্বয় আছে এতে।

বেল ৫০৫ মডেলের হেলিকপ্টারবেল ৫০৫ মডেলের দুটি হেলিকপ্টারে ‘হালং বে সিনিক ফ্লাইট’ সেবা দেওয়া হচ্ছে। এতে চড়তে হলে ভিয়েতনামের রাজধানী হ্যানয় থেকে ১৭০ কিলোমিটার দূরে তুয়ান চাও দ্বীপে যেতে হবে ভ্রমণপ্রেমীদের। সেখান থেকেই ফ্লাইট ছাড়ে ও বেড়ানো শেষে ফিরে আসে। প্রতিটিতে তিন জন করে বসতে পারে।

হালং বে দেখার দর্শনীয় ফ্লাইটহালং বে’র মনোমুগ্ধকর প্রকৃতি দেখতে হেলিকপ্টারে বড়সড় জানালা আছে। ভ্রমণবিলাসীদের সামনে মুখ করে ফ্লাইটে বসতে হয়।

হালং বে এলাকায় হেলিকপ্টারে পর্যটকদের সেবা দেওয়ার দায়িত্ব সামলান তারাতবে এটাই ভিয়েতনামে দর্শনীয় স্থান দেখার প্রথম ফ্লাইট কার্যক্রম নয়। হালং বে দেখতে হেলিকপ্টার সেবা দিচ্ছে হাই আও এভিয়েশন। হ্যানয়ের বাইরে ভিয়েতনামের প্রথম বাণিজ্যিক সামুদ্রিক বিমান সেবা শুরু করে এই প্রতিষ্ঠান।
হাই আও এয়ারলাইনসের ফ্লাইট থেকে দেখা হালং বেহাই আও এভিয়েশনের ফ্লাইট তুয়ান চাও আইল্যান্ড মেরিনায় উড্ডয়ন ও অবতরণ করে। ২৫ মিনিটের এই ট্যুরে মৌসুম অনুযায়ী ১০২ থেকে ১২০ মার্কিন ডলার খরচ হয়ে থাকে। দোও বে দ্বীট, কংডা দ্বীপ ও বো হান দ্বীপে নিয়ে যায় তারা।

/জেএইচ/

x