দ্য গার্ডিয়ান ‘বেতন বৈষম্য’ নিয়ে বিবিসির কাছে জবাব চাইবে ইএইচআরসি

বিদেশ ডেস্ক ১৯:২৭ , জানুয়ারি ০৯ , ২০১৮

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসিতে নারী বৈষম্যের অভিযোগের ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করতে যাচ্ছে ব্রিটেনের মানবাধিকার ও সমতা নিশ্চিতকরণে নিয়োজিত জাতীয় সংস্থা দ্য ইকুয়্যালিটিজ এন্ড হিউম্যান রাইটস কমিশন (ইএইচআরসি)। এই নিয়ে লিখিতভাবে বিবিসির কাছে জবাব চাইবে সংস্থাটি। বিবিসির বিরুদ্ধে নারীর প্রতি বেতন বৈষম্য করার অভিযোগ এনে সংবাদমাধ্যমটির চীনা সংস্করণের সম্পাদক ক্যারি গ্রেসি পদ ছেড়ে দেওয়ার পর এই উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। মঙ্গলবার (৯ জানুয়ারি) খবরটিকে প্রথম পাতার শিরোনাম করেছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান।

গার্ডিয়ানের প্রথম পাতা
বিবিসি’র বিরুদ্ধে নারীর প্রতি কাঠামোগত বৈষম্যের অভিযোগ তুলে সম্পাদকের পদ ছেড়ে দেন স্বনামধন্য ওই ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমের একজন সম্পাদক। চীনা সংস্করণের সম্পাদক ক্যারি গ্রেসির অভিযোগ,সমমর্যাদার পুরুষ সহকর্মীদের তুলনায় ৫০ শতাংশ বেতন কম পান তিনি। তার দাবি,এই বেতন বৈষম্যের মধ্য দিয়ে বিবিসি নারীর প্রতি সমতার প্রতিশ্রুতি রক্ষা না করে ‘আস্থার সংকট’ সৃষ্টি করেছে। বৈষম্যের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ার ক্ষেত্রে সম্পাদক পদটিকে প্রতিবন্ধকতা হিসেবে দেখছেন গ্রেসি। সে কারণেই নিউজরুমে ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। বিবিসি অবশ্য গ্রেসির আনা ‘কাঠামোগত বৈষম্য’র অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

বৈষম্য করা প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া এবং তিরস্কার করার ক্ষমতা রয়েছে  মানবাধিকার ও সমতা নিশ্চিতকরণে নিয়োজিত ব্রিটিশ সংস্থা ইএইচআরসি-এর। রাষ্ট্রীয় সংস্থাটির মুখপাত্র জানিয়েছেন তারা বিবিসির বেতন বৈষম্যের ঘটনায় হস্তক্ষেপ করবেন। তিনি বলেন: ‘আমরা বিবিসিকে চিঠি পাঠাবো যেন তারা আমাদেরকে তাদের বেতন নীতিমালা এবং গ্রেসির ঘটনাটি নিয়ে তথ্য দেয়। এই তথ্যের উপর ভিত্তি করেই আমরা সিদ্ধান্ত নেব পরবর্তী ব্যবস্থা দরকার হবে কিনা।’

গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়, বেতন বৈষম্য নিয়ে ইএইচআরসি এর হস্তক্ষেপ বিবিসির জন্য লজ্জাজনক।

/এফইউ/

x