দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস জেডটিইকে স্বাভাবিক অবস্থায় আনতে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের সমঝোতা

বিদেশ ডেস্ক ২৩:৫১ , জুন ০৮ , ২০১৮

চীনের টেলিকমিউনিকেশন শিল্পের প্রভাবশালী প্রতিষ্ঠান জেডটিইর ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সমঝোতা হয়েছে চীনের। ইরান ও উত্তর কোরিয়াতে পণ্য বিক্রির দায়ে প্রতিষ্ঠানটির ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র। নিষেধাজ্ঞার কারণে যুক্তরাষ্ট্রে উৎপাদিত পণ্য যেমন জেডটিইর কাছে বিক্রি আইনানুগভাবে নিষিদ্ধ হয়ে গিয়েছিল, তেমনি যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিষ্ঠানটির পণ্য বিক্রিরও আর আইনানুগ বৈধতা ছিল না। বৃহস্পতিবার এই অচলবস্থার নিরসন হয়েছে। জরিমানা দিয়ে এবারের মতো নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে আবার যুক্তরাষ্ট্রে ব্যবসা করার সুযোগ পেতে যাচ্ছে জেডটিই। যুক্তরাষ্ট্রের পত্রিকা নিউ ইয়র্ক টাইমস  তাদের ৮ জুন ২০১৮ তারিখে প্রকাশিত সংখ্যার প্রথম পাতায় একটি শিরোনাম করেছে, ‘জেডটিইকে স্বাভাবিক অবস্থায় আনতে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের সমঝোতা।’

নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে যুক্তরাষ্ট্রের দেওয়া শর্তের মধ্যে রয়েছে আরও ১০০ কোটি ডলার জরিমানা এবং প্রতিষ্ঠানটির কার্যক্রমকে যুক্তরাষ্ট্রের নিয়ন্ত্রণ সংস্থাগুলোর নিয়মিত নজরদারিতে থাকতে দেওয়া। নিউ ইয়র্ক টাইমস লিখেছে, যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইরান ও উত্তর কোরিয়ার কাছে পণ্য বিক্রির শাস্তি হিসেবে জেডটিইকে ইতিমধ্যেই ৮৯ কোটি ২০ লাখ ডলার জরিমানা পরিশোধ করতে হয়েছে। এখন আবার নতুন ১০০ কোটি ডলারও গুনতে হবে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে থাকতে হলে। জেডটিইর বিরুদ্ধে দেওয়া নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের যে সমঝোতা হয়েছে তাতে আরও বলা হয়েছে, প্রতিষ্ঠানটিকে ৪০ কোটি ডলার জামানত হিসেবে রাখতে হবে। প্রতিষ্ঠানটি যদি বৃহস্পতিবারে হওয়া সমঝোতা অনুযায়ী কাজ না করে তা হলে ওই অর্থ বাজেয়াপ্ত করা হবে।

শুধু জরিমানাতেই ফাঁড়া কাটছে না চীনা প্রতিষ্ঠানটির। যুক্তরাষ্ট্রের শর্তানুযায়ী, জেডটিইকে তাদের পরিচালনা পর্ষদে পরিবর্তন আনতে হবে। এমন কি যুক্তরাষ্ট্রের মনোনীত ব্যক্তিদের দ্বারা গঠিত একটি দলকে জেডটিইতে কাজ করতে দিতে হবে যাতে তারা প্রতিষ্ঠানটির কার্যক্রমের ওপর নজর রাখতে পারে।

কিন্তু চীনা প্রতিষ্ঠান জেডটিইকে বিপদ থেকে উদ্ধার করার উদ্যোগ নিয়ে সমালোচনার শিকার হয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। গত মাসে তিনি টুইটারে লিখেছিলেন, ‘জেডটিইকে দ্রুত স্বাভাবিক অবস্থায় আনতে’ চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে কাজ করছেন তিনি। এতে হাজার হাজার চীনা নাগরিক কর্মহীন হয়ে যাওয়া থেকে বাঁচবে। পরবর্তীতে তিনি লিখেছিলেন, জেডটিইর ওপর থাকা নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার বিষয়টি চীনের সঙ্গে চলামান বৃহত্তর বাণিজ্য সংক্রান্ত সমঝোতার অংশ। নিউ ইয়র্ক টাইমস লিখেছে, জেডটিইর ওপর নিষেধাজ্ঞার কারণে অনেক মার্কিন প্রতিষ্ঠান বিপাকে পড়েছিল। কারণ তারা জেডটিইর কাছে যন্ত্রাংশ বিক্রি করত।

 

/এএমএ/

x