যেমন ছিল নাখালপাড়ার 'জঙ্গি' আস্তানা

আমানুর রহমান রনি ১৭:১১ , জানুয়ারি ১২ , ২০১৮

জঙ্গিদের কক্ষরাজধানীর পশ্চিম নাখালপাড়ার ১৩/১ হোল্ডিং নম্বরের বাড়িটির নাম রুবি ভিলা। ষষ্ঠ তলার বাড়িটির পঞ্চম তলার দুই ইউনিটের পূর্ব পাশের ফ্ল্যাটটিতে রয়েছে একটি ড্রইং, তিনটি বেড ও একটি রান্নাঘর।  ফ্ল্যাটে ঢুকতেই প্রথমে ড্রইং রুম। এর ডান পাশে দু’টি ও বাম পাশে একটি করে বেডরুম। আর বাম পাশের বেডরুমেই ছিল তিন জঙ্গি। বাকি দুই রুমে দু’জন করে চার জন থাকতেন।  জঙ্গিদের রুমের পাশেই রান্নাঘর। এখানেই চুলার ওপর গ্রেনেড রেখে বিস্ফোরণ ঘটানোর চেষ্টা করেছিল জঙ্গিরা।  র‍্যাবের মুখপাত্র মুফতি মাহমুদ খান বাংলা ট্রিবিউনকে এসব তথ্য  জানিয়েছেন।

রুবি ভিলা

তিনি বলেন, জঙ্গিদের লাশ সরানোর পর কক্ষটির ভেতরে ঢুকে দেখা গেছে একটি চৌকির ওপর কাপড়-চোপড় ও অন্যান্য জিনিসপত্র স্তূপ করে রাখা রয়েছে। মেঝেতে পড়ে আছে দুটি পিস্তল, ৪৪টি গুলির খোসা,সাদাকালো রঙের তিনটি স্কার্ফ। এছাড়া ওই ফ্ল্যাট থেকে তিনটা জাতীয় পরিচয়পত্র (আইডি), তিনটি সুইসাইডাল ভেস্ট, ১৪টা ডেটোনেটর, চারটি পাওয়ার জেল উদ্ধার করা হয়েছে।

র‍্যাবের মুখপাত্র জানান, বাড়ির মালিক শাহ মোহাম্মদ সাব্বির হোসেন বিমানের স্টুয়ার্ট। অভিযানের সময় তিনি কর্মস্থলে ছিলেন।

জঙ্গিদের কক্ষে র‍্যাব সদস্যমুফতি জানান, বৃহস্পতিবার রাত ২টার দিকে রুবি ভিলায় অভিযান চালায় র‌্যাব। শুক্রবার বেলা সাড়ে ৩টার দিকে অভিযান শেষ হয়। জঙ্গি আস্তানা থেকে তিনটি লাশ বের করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে তেজগাঁও থানা পুলিশ লাশ তিনটির সুরতহাল করেছে। এরপর ময়নাতদন্তের জন্য লাশ তিনটি সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। জঙ্গিরা যে ফ্ল্যাটে থাকতো সেটি সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে।

এর আগে র‌্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজির আহমেদ জানান, নাখালপাড়ার ওই বাড়ির ভেতর তিন জঙ্গি আত্মঘাতী হয়েছে। গত ৪ জানুয়ারি ভুয়া আইডি কার্ড ব্যবহার করে তারা ওই বাড়িটি ভাড়া নেয়। বাড়িওয়ালা সাব্বির হোসেন জানেনই না তার বাড়িতে নতুন ভাড়াটিয়া উঠেছে। তিনি তার বাড়িটি ভাড়া দেওয়ার জন্য রুবেল নামে একজনকে দায়িত্ব দিয়ে রেখেছেন। রুবেলই মেস ভাড়া দিয়ে থাকে।

মেঝেতে পড়ে রয়েছে দুটি পিস্তল

‘রুবি ভিলা' নামের ওই বাড়িতে এ নিয়ে মোট চার বার অভিযান চালানো হলো। র‌্যাব ও পুলিশ এর আগে আরও তিনবার অভিযান চালিয়েছিল। ২০১৩, ২০১৬ ও ২০১৭ সালে সেখানে অভিযান চালানো হয়। আর বৃহস্পতিবার রাতের অভিযান নিয়ে মোট চার বার অভিযান চালানো হলো সেখানে। আগের অভিযানগুলোয় জামায়াত-শিবিরের বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতারও করা হয়েছে।

আরও পড়ুন- 

নাখালপাড়ার জঙ্গি আস্তানায় অভিযান শেষ

 

আগে আরও তিনবার অভিযান চালানো হয় নাখালপাড়ার ওই বাড়িতে

ভুয়া জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে বাসা ভাড়া নেয় তিন 'জঙ্গি'

/এসটি/

x