ইটের বিকল্প ‘ব্লক’ ব্যবহার উৎসাহিত করতে সংসদে বিল

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট ২১:৩২ , ফেব্রুয়ারি ১০ , ২০১৯



জাতীয় সংসদ (ছবি- সাজ্জাদ হোসেন)নির্মাণ কাজে পোড়া ইটের পরিবর্তে ‘ব্লক’ ব্যবহার উৎসাহিত করতে আইন সংশোনের প্রস্তাব সংসদে তোলা হয়েছে। রবিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) ‘ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন (নিয়ন্ত্রণ) বিল-২০১৩’ সংসদে তোলেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রী মো. শাহব উদ্দিন। পরে বিলটি পরীক্ষা করে ১৫ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটিতে পাঠানো হয়। একাদশ জাতীয় সংসদে তোলা এটিই প্রথম বিল।
গত ৩১ জানুয়ারি একাদশ সংসদ যাত্রা শুরু করে। রবিবার ছিল এর সপ্তম কার্যদিবস।
বিলে বলা হয়েছে, মাটির ব্যবহার কমাতে সরকার প্রজ্ঞাপন দিয়ে ইটের বিকল্প হিসেবে ব্লক উৎপাদন ও ব্যবহার বাধ্যতামূলক করতে পারবে।
এতে ব্লকের সংজ্ঞায় বলা হয়েছে, ব্লক অর্থ বালি, সিমেন্ট, ফ্ল্যাই অ্যাশ বা অন্য কোনও উপাদান, মাটি ছাড়া না পুড়িয়ে তৈরি করা নির্মাণসামগ্রী।
বিলে বলা হয়েছে, সরকার প্রযুক্তি ও উৎপাদন ক্ষমতা অনুসারে ইটভাটার জায়গার পরিমাণ ও নির্দিষ্ট এলাকায় ইটভাটার সংখ্যা নির্ধারণ করে দিতে পারবে। অন্য কোনও আইনে যা-ই থাকুক না কেন, কোনও ব্যক্তি ইটভাটায় ইট পোড়ানোর কাজে নির্ধারিত মানমাত্রার অতিরিক্ত সালফার, অ্যাশ, মারকারি বা অনুরূপ উপাদানসংবলিত কয়লা জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করতে পারবে না।



প্রস্তাবিত বিলে বলা হয়েছে, আমদানি করেও ব্যবহার করা যাবে না। নতুন আইনে বিভিন্ন জরিমানার অর্থ বাড়ানো হয়েছে।


বর্তমান আইনের তফসিলে ইট তৈরিতে লাইসেন্স পাওয়ার জন্য আবেদন, লাইসেন্স এবং ইট প্রস্তুতকারীর হলফনামার নমুনা সংযোজন করা হয়েছে।
বিলে লাইসেন্স পাওয়ার আবেদনের সঙ্গে ইট তৈরির মাটির উৎস উল্লেখ করে হলফনামা দাখিল করা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।
বিলের উদ্দেশ্য ও কারণ সম্পর্কে মন্ত্রী বলেন, এই আইন প্রণয়ন হলে, এতে কৃষির জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয় টপ সয়েল রক্ষাসহ ইটভাটাজনিত পরিবেশ দূষণ কমবে।

/ইএইচএস/এইচআই/

x