আন্দোলনের কথা বলতে মিনিমাম একটা মুখ থাকা লাগে, লিটন নন্দিকে রাব্বানী

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট ১৩:৫৪ , মার্চ ১৬ , ২০১৯

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন গোলাম রাব্বানীআন্দোলনের কথা বলতে মিনিমাম একটি মুখ থাকা উচিত বলে লিটন নন্দীর উদ্দেশে বলেছেন ডাকসুর নবনির্বাচিত জিএস গোলাম রাব্বানী। শনিবার (১৬ মার্চ) দুপুরে গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণে রওনা দেওয়ার আগে সাংবাদিকদের একথা বলেন তিনি।

ডাকসুর নবনির্বাচিত নেতাদের নিয়ে রওনা দিয়েছে বাস

বাম ছাত্র সংগঠনগুলোর বৃহৎ আন্দোলনের হুঁশিয়ারির বিষয়ে রাব্বানী বলেন, ‘এটাকে বলতে পারেন স্রেফ একটি প্রহসন। একদম সুনির্দিষ্ট করে বলি, একমাত্র লিটন নন্দী আন্দোলনের নেতৃত্বে। তিনি সব মিলিয়ে ভোট পেয়েছেন ১২০০। একটা মিনিমাম মুখ থাকা উচিত কথা বলার জন্য। এরকম ভোটে জামানত বাজেয়াপ্ত হয়। সুতরাং এটা কোনও শিক্ষার্থীদের আন্দোলন নয়। এটা একটি নির্দিষ্ট গোষ্ঠীর আন্দোলন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকাংশ শিক্ষার্থী আমাদের সঙ্গে রয়েছেন। আমাদেরকে ভালোবাসার ম্যান্ডেন্ট দিয়ে তারা প্রমাণ করেছে। সুতরাং তাদেরকে নিয়ে আমরা এগিয়ে যেতে চাই।’

ডাকসুর নির্বাচিত নেতারাতিনি বলেন, ‘আজকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের দিক-নির্দেশনামূলক যে বক্তব্য দেবেন এতে কারও মধ্যে আর কোনও কনফিউশন থাকবে না। আমরা সবাই একসঙ্গে মিলে কাজ করতে পারবো।’

ডাকসুর নির্বাচিত নেতারাশনিবার বিকাল ৪টায় হল সংসদের ২৩৪ এবং ডাকসুর কেন্দ্রীয় ২৫ জনসহ ২৫৯ জন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গণভবনে যাবেন। তারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে করে যাবেন।

ঢাবির পরিবহন ম্যানেজার কামরুল হাসান বলেন, ‘আটটি বাস এবং পাঁচটি মিনিবাস তৈরি রাখা হয়েছে। আমরা ৫০০ জনের পরিবহনের ব্যবস্থা করে রেখেছি। প্রয়োজন হলে আরও দেওয়া হবে। আমরা ১২টার মধ্যে সব বাস রেডি রেখেছি।’

এর আগে বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর একজন বিশেষ সহকারী ফোনে আমন্ত্রণ জানান ডাকসু এবং হল সংসদে নির্বাচিতদের। 

 

/এসও/এসটি/

x