দেশীয় ফলের চাষ বৃদ্ধি করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

বাংলা ট্রিবিউন ডেস্ক ১০:০৫ , জুন ১৬ , ২০১৯

বৃক্ষরোপণপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সরকারের কৃষিবান্ধব নীতি ও বাস্তবমুখী বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণের ফলে খাদ্যশস্য উৎপাদনে দেশ স্বয়ংসম্পূর্ণ। এছাড়া শাক-সবজি ও ফলমূল উৎপাদনেও ব্যাপক সাফল্য এসেছে।

‘ফলদ বৃক্ষ রোপণ পক্ষ’ ও ‘জাতীয় ফল প্রদর্শনী’ উপলক্ষে দেওয়া বাণীতে এসব কথা বলেন। ‘কৃষি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে এ বছর ১৬-৩০ জুন ‘ফলদ বৃক্ষ রোপণ পক্ষ’ এবং ১৬-১৮ জুন ‘জাতীয় ফল প্রদর্শনী’র আয়োজন করা হয়েছে। ফলদ বৃক্ষ রোপণ পক্ষের এবারের প্রতিপাদ্য ‘পরিকল্পিত ফল চাষ যোগাবে পুষ্টি সম্মত খাবার।’
তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশীয় ফল বিশেষ পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ হওয়ায় এ চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় দৈনন্দিন খাদ্য তালিকায় দেশীয় ফলমূলের যোগান নিশ্চিত করতে হবে। তাই পরিকল্পিতভাবে আধুনিক প্রযুক্তির সমন্বয় ঘটিয়ে বছরব্যাপী দেশীয় ফলের চাষ বৃদ্ধি করতে হবে।’
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভৌগোলিক অবস্থানগত কারণে বাংলাদেশ প্রতি বছরই কম বেশি বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগের সম্মুখীন হয়। প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলা ও পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষাসহ নৈসর্গিক শোভা বর্ধনে দেশীয় ফল ও ফলদ বৃক্ষের গুরুত্ব অপরিসীম।
তিনি পরিবর্তিত জলবায়ুর অভিঘাত বিবেচনায় নিয়ে অঞ্চল উপযোগী স্বল্প মেয়াদি, অধিক ফলনশীল ও লাগসই দেশীয় ফলের জাত উদ্ভাবনের জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে আহ্বান জানান।
তিনি বলেন, ডেউয়া, চালতা, কাউ, করমচা, জাম, গোলাপজাম, ক্ষুদেজাম, তেঁতুল, বরই, লটকন, বিলিম্বি, গাব ইত্যাদি দেশি ফল বৃক্ষ রোপণে বিশেষ নজর দিতে হবে। একইসঙ্গে স্ট্রবেরি, রাম্বুটান, ড্রাগনফল, এভাকাডো, মিষ্টি তেঁতুল ইত্যাদি নতুন বিদেশি ফলের আবাদ বৃদ্ধির জন্যও উদ্যোগ নেওয়ার কথা বলেন তিনি।
ফলদ বৃক্ষ রোপণ পক্ষ ২০১৯ ও জাতীয় ফল প্রদর্শনী উপলক্ষে আয়োজিত কর্মসূচির সার্বিক সাফল্য কামনা করেন প্রধানমন্ত্রী। খবর বাসস।

 

/এসটি/

x