সচিবালয়জুড়ে বঙ্গবন্ধু

শফিকুল ইসলাম ২১:৪৭ , আগস্ট ১৪ , ২০১৯

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ভবন ও এর সামনের অংশে লাগানো হয়েছে বিশাল আকৃতির শোক দিবসের ব্যানার

আগামীকাল ১৫ আগস্ট। জাতীয় শোক দিবস। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদতবার্ষিকী। বাঙালি জাতি গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে এ দিনে জাতির পিতাকে স্মরণ করার ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে। সারাদেশের মতো প্রশাসনের কেন্দ্রবিন্দু সচিবালয়েও এ উপলক্ষে উদ্যোগ নিয়েছে প্রতিটি মন্ত্রণালয়। আজ সচিবালয় ঘুরে দেখা গেছে, বিনম্র শ্রদ্ধার বার্তা ও ছবিতে সচিবালয়জুড়েই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের উপস্থিতি। প্রায় প্রতিটি ভবনেই শোভা পাচ্ছে জাতীয় শোক দিবসের ব্যানার ও বড় বড় প্লাকার্ড। সচিবালয়ের মূল গেটেও শোভা পাচ্ছে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি অঙ্কিত বড় বড় বোর্ড, আর ভবনগুলোতে ওপর থেকে নিচ পর্যন্ত ঝুলছে বড় বড় ব্যানার। জাতির জনকের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে এসব বোর্ড ও ব্যানার তৈরি করেছে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়।

সাত নম্বর ভবনের দেয়ালে ঝোলানো হয়েছে শোক দিবসের ব্যানার

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রীসহ সচিবালয়ের সর্বস্তরের কর্মকর্তা কর্মচারীরা ১৪ আগস্ট বুকে ধারণ করেছেন কালো ব্যাজ।

সচিবালয়ের সাত নম্বর ভবনের দেয়ালে লাগানো শ্রম ও কর্ম সংস্থান মন্ত্রণালয়ের সৌজন্যে শোক দিবসের ব্যানার

বুধবার (১৪ আগস্ট) সচিবালয় ঘুরে দেখা গেছে, সচিবালয়ের প্রবেশপথের দুপাশে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বসানো হয়েছে বঙ্গবন্ধুর বিশাল প্রতিকৃতি সংবলিত বোর্ড। এগুলোর মধ্যে অনেক বোর্ডেই লেখা রয়েছে বঙ্গবন্ধু ভাষণের সেরা উক্তিগুলো। সচিবালয়ের বিভিন্ন ভবনের দেয়ালের পাশে যেসব বোর্ড বা ব্যানার বসানো হয়েছে সেগুলো তৈরি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, তথ্য মন্ত্রণালয়, স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়, বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়, বন পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়, পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়, নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়, সমাজকল্যাণ বিষয়ক মন্ত্রণালয়, শিক্ষা মন্ত্রণালয়, খাদ্য মন্ত্রণালয়, কৃষি মন্ত্রণালয়।।

সচিবালয়ের ৬ ও ৭ নম্বর ভবনের সংযোগ সড়কের দেয়ালে শোক দিবসের ব্যানার

সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে জাতীয় কর্মসূচির সঙ্গে মিল রেখে মন্ত্রণালয়গুলো শোক দিবসের কর্মসূচি পালন করবে। এসব কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে রাজধানীতে ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরের সামনে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন, এতিম, গরিব ও দুস্থদের মধ্যে খাবার বিতরণ। প্রতিটি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্প্রাপ্ত  মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রীরা যাবেন গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাতে।

সচিবালয়ের প্রধান গেটের পাশের দেয়ালে লাগানো হয়েছে তথ্য মন্ত্রণালয়ের শোক দিবসের গাথা

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে পরিবেশ বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের একজন উপ-সচিব নাম প্রকাশ না করার শর্তে বাংলা ট্রিবিউনকে জানিয়েছেন, ১৫ আগস্ট বাঙালি জাতির জন্য একটি শোকাবহ দিন। জাতীয় জীবনে এ দিনটি যথাযোগ্য মর্যাদার সঙ্গে পালনের জন্য সরকারিভাবে যেসব কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে এর প্রতিটি কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করবে মন্ত্রণালয়ের প্রতিটি কর্মকর্তা-কর্মচারী।

পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের নিচতলায় লিফটের সামনে শোক দিবসের প্ল্যাকার্ড

এদিকে অফিসার্স ক্লাবের কোষাধ্যক্ষ স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব মেজবাহ উদ্দিন বাংলা ট্রিবিউনকে জানিয়েছেন, ১৫ আগস্ট একটি শোকাবহ দিন। বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতির অহঙ্কার। বাঙালির ইতিহাসের শ্রেষ্ঠ সন্তান। দীর্ঘদিন বাংলাদেশের প্রকৃত ইতিহাস নতুন প্রজন্মকে জানতে দেওয়া হয়নি। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী পালন উপলক্ষে সরকারিভাবে মুজিব বর্ষ পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ কর্মসূচির আওতায় সমস্ত কর্মসূচি যথাযোগ্য মর্যাদায় দেশবাসী পালন করবে।

জন প্রশাসন মন্ত্রণালয় ভবনে ঝোলানো হয়েছে শোক দিবসের ব্যানার

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মচারী মনির হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে জানিয়েছেন, গত কয়েকদিন ধরেই সচিবালয়ের তিন নম্বর ভবনে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের দেয়ালে এসব বোর্ড ও ব্যানার লাগানো হয়েছে। এরও আগে থেকে এসব বোর্ড তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। ঈদুল আজহার ছুটির আগে সব বোর্ড ও ব্যানার লাগানো শেষ না হওয়ায় ঈদের পরেও এসব কাজ করা হয়েছে। তিনি বলেন, শোক দিবসের সমস্ত অনুষ্ঠানে মন্ত্রণালয়ের সর্বস্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অংশ নেবেন।

ছবি: শফিকুল ইসলাম

 

 

/টিএন/এমওএফ/

x