‘সামাজিক অবস্থার পরিবর্তনে কন্যাশিশু দিবস পালন করতে হয়’

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট ১৩:৩০ , অক্টোবর ১৩ , ২০১৭

শিশু একাডেমির আলোচনা ও অনুষ্ঠান

‘প্রতিটি মানব শিশু আল্লার সৃষ্টি। লিঙ্গ অনুযায়ী কেউ ছেলে, কেউ মেয়ে। এটা একটি বৈজ্ঞানিক সত্য। তারপরও মেয়েদের সামাজিক অবস্থার পরিবর্তনের জন্য আমাদের জাতীয় কন্যাশিশু দিবস পালন করতে হয়।’ শুক্রবার (১২ অক্টোবর) জাতীয় কন্যাশিশু দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেছেন বাংলাদেশ শিশু একাডেমির চেয়ারম্যান ও কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন।

সেলিনা হোসেন বলেন, ‘প্রত্যেকে যদি নিজেকে প্রশ্নবিদ্ধ করেন, কেন এই দিবসটি উদযাপন করতে হবে। কেন মেয়েটি ছেলেশিশুর মতো একই সুযোগ সুবিধা পাবে না। তাহলে আমাদের সমাজে পরিবর্তন আসবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘শুধু রাষ্ট্র এ জায়গাটিকে নিয়ন্ত্রণ করবে, এটা কোনোভাবে সঙ্গত নয়। নারী-পুরুষ নির্বিশেষে প্রতিটি ব্যক্তির শুভবোধ জাগ্রত হওয়া এ পরিবর্তনের জন্য জরুরি।’

‘কন্যাশিশুর জাগরণ, আনবে দেশে উন্নয়ন’ এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে শুক্রবার জাতীয় কন্যাশিশু দিবস ২০১৭ উদযাপিত হচ্ছে। এ উপলক্ষে শিশু একাডেমিতে এক আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এসময় বিভিন্ন সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন সেলিনা হোসেন। 

অনুষ্ঠানে কন্যাশিশুদের নিয়ে বিভিন্ন সময়ে লেখা ৩১টি প্রবন্ধের একটি বইয়ের মোড়ক উম্মোচন করা হয়।

 

Advertisement

Advertisement

Pran-RFL ad on bangla Tribune x