‘৯৯৯’ নম্বরে কল করে ডাকাতি থেকে রক্ষা

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট ১৮:২০ , এপ্রিল ১৭ , ২০১৮

সুনামগঞ্জের বিশম্বপুর থানার কাপনা গ্রামে মধ্যরাতে হানা দিয়েছিল ডাকাত দল। গ্রামেরই একজন কল করেন জাতীয় জরুরি সেবা ‘৯৯৯’ নম্বরে। এরপরই থানা পুলিশ হাজির হয়ে যায় ঘটনাস্থলে। আটক করা হয় আন্তঃজেলা ডাকাত দলের ১১ জন সদস্যকে। পালিয়ে গেছে অন্তত তিনজন। সোমবার (১৬ এপ্রিল) দিবাগত রাত সোয়া ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
সুনামগঞ্জ বিশম্বপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোল্লা মনির হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘ডাকাত দল হানা দিয়েছিল কাপনা গ্রামের জুলহাসের বাড়িতে। ওই গ্রামের একজন ৯৯৯-এ কল করার পর সেখান থেকে আমাদের ডিউটি অফিসারকে অবহিত করা হয়। তাৎক্ষণিকভাবে আমাদের পুলিশ ফোর্স গ্রামবাসীকে সঙ্গে নিয়ে ডাকাতদের আটক করে। এতে ডাকাতির হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে বাড়িটি।’
এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ পুলিশের এআইজি (মিডিয়া অ্যান্ড পিআর) সহেলী ফেরদৌস এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানান, ঘটনার সময় ওই গ্রামের ওয়াদুদ নামের একজন ‘৯৯৯’ নম্বরে কল করে জানান, তাদের গ্রামে ১০-১২ জনের একটি ডাকাত দল এসেছে। গ্রামটি সুনামগঞ্জ জেলার বিশম্বরপুর থানার ডলুরা বিজিবি ক্যাম্পের পাশে। ‘৯৯৯’-এর কলটেকার বিষয়টি তাৎক্ষণিক বিশম্বরপুর থানার ডিউটি অফিসারকে জানিয়ে ঘটনাস্থলে দ্রুত পুলিশ টিম পাঠানোর জন্য বলেন।

খবর পেয়ে বিশম্বরপুর থানা পুলিশের একটি টহল টিম দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। পুলিশ গ্রামবাসীর সহযোগিতায় ডাকাত দলের ১১ জন সদস্যকে গ্রেফতার করে থানায় আনতে সক্ষম হয়। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। ‘৯৯৯’ নম্বরে কল করার ফলে বড় ধরনের ডাকাতি ও জানমালের ক্ষয়ক্ষতি থেকে রক্ষা পেলো গ্রামবাসী।

/আরজে/জেএইচ/

x