‘বিশ্বে প্রায় এক-তৃতীয়াংশ নারী সহিংসতার শিকার’

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট ২০:০৫ , অক্টোবর ১১ , ২০১৮

সারা বিশ্বে প্রায় এক-তৃতীয়াংশ নারী কোথাও না কোথাও সহিংসতার শিকার হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশের ব্রিটিশ হাইকমিশনের ভারপ্রাপ্ত হাইকমিশনার ক্যানবের হোসেন বোর। আন্তর্জাতিক কন্যা শিশু দিবস উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (১১ সেপ্টেম্বর) ইউসেপ বাংলাদেশ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধান অতিথি হিসেবে ক্যানবের হোসেন বোর আরও বলেন, 'আমি এই অনুষ্ঠানে আসতে পেরে অত্যন্ত আনন্দিত। সারা বিশ্বের পরিপ্রেক্ষিতে আজকের এই দিবসের একটি তাৎপর্য আছে। পৃথিবীতে প্রায় এক-তৃতীয়াংশ নারী কোথাও না কোথাও সহিংসতার শিকার হচ্ছে। দুই-তৃতীয়াংশ নারী বাল্যবিবাহের শিকার হচ্ছে। এসব চ্যালেঞ্জ বাংলাদেশসহ বিশ্বের অন্যান্য দেশের নারীরা মোকাবিলা করছে। এমন একটি অবস্থায় ইউসেপ বাংলাদেশ নারীদের শিক্ষা, প্রশিক্ষণ এবং দক্ষতা উন্নয়নের মাধ্যমে সমাজের মৌলিক চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবিলা করছে। ব্রিটিশ সরকার বাংলাদেশে নারীদের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য বিভিন্ন প্রোগ্রাম বাস্তবায়ন করছে। এখন পর্যন্ত প্রায় ১৫ লাখ যুবক-যুবতীর সামাজিক ও শিক্ষা উন্নয়নে ব্রিটিশ সরকার কাজ করেছে। এরমধ্যে প্রায় ৫৫ শতাংশই নারী'।

ইউসেপ বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ করে তিনি বলেন, তোমরা তোমাদের আত্মবিশ্বাস কখনোই হারাবে না। চলার পথে যতই বাধাবিপত্তি আসুক না কেন, সব বাধা তোমরা তোমাদের সাহস ও শক্তি দিয়ে মোকাবিলা করবে।

বিশ্বে লিঙ্গবৈষম্য দূর করতে ২০১২ সালের ১১ অক্টোবর প্রথম আন্তর্জাতিক কন্যা শিশুদিবস পালিত হয়। এ দিবসটিকে মেয়েদের দিনও বলা হয়। দিবসটিতে এবারের প্রতিপাদ্য 'তার সাথে: একটি দক্ষ কন্যা শক্তি'। জাতিসংঘের সদস্য রাষ্ট্রসমূহ প্রতি বছর এ দিবসটি পালন করে থাকে।

ইউসেপ বাংলাদেশ পরিচালিত শিশুদের নিয়ে সকল কার্যক্রমের অর্ধেক নারীদের নিয়ে হয়। যার বেশিরভাগ অংশ কন্যাশিশু। এই শিশুদের লেখাপড়া, দক্ষতা, প্রশিক্ষণ প্রদান এবং সর্বোপরি তাদের সকল প্রকার অধিকার আদায়ের জন্য সক্ষম করে তোলা হয়। যার ফলে দিবসটি ইউসেপ বাংলাদেশের জন্য খুবই তাৎপর্যপূর্ণ।

/এফএএন/এমওএফ/

x