ছুরিকাঘাতে ভাবিকে হত্যা, চলে গেলেন আহত মাও

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট ১২:০৬ , ফেব্রুয়ারি ১২ , ২০১৯

খুনরাজধানীর দক্ষিণখান এলাকায় শফিকুল ইসলাম নামে এক যুবকের ছুরিকাঘাতে আহত মা হামিদা বেগম (৬০) মারা গেছেন। মঙ্গলবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সকালে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। নিহতের লাশ ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে। ঢামেক পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই বাচ্চু মিয়া এই তথ্য জানিয়েছেন।

এর আগে সোমবার (১১ ফেব্রুয়ারি) বিকাল ৫টার দিকে দক্ষিণখানের ফায়দাবাদের টিআইসি কলোনিতে ছুরিকাঘাতে ভাবি শারমিন আক্তারকে (৩৫) হত্যা করেন শফিকুল।

দক্ষিণখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তপন চন্দ্র সাহা বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, পারিবারিক কলহের জেরে শফিকুল প্রথমে তার নিজের মাকে ছুরিকাঘাত করে। এই দেখে তার ভাবি চিৎকার দিয়ে এগিয়ে আসলে তাকেও ছুরিকাঘাত করে সে। এরপর আহত দুইজনকে উদ্ধার করে টঙ্গী সরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে শারমিনের মৃত্যু হয়।

তিনি জানান, এই ঘটনার পরপরই ঘাতক শফিকুল ইসলাম ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।

শফিকুলের বোন নূর নাহার জানান, তারা দুই বোন ও তিন ভাই। তার বাবার নাম নূর নবী (মৃত)। তার মেঝ ভাই শফিকুল মায়ের সম্পত্তি তার নামে লিখে দিতে বলেছিল। সম্পত্তি লিখে না দেওয়ার কারণে উত্তেজিত হয়ে প্রথমে মাকে ছুরিকাঘাত করে। এতে বড় ভাবি এগিয়ে এলে তাকেও ছুরিকাঘাত করে শফিকুল। এতে ভাবি শারমিন মারা যান।

আরও পড়ুন: 

রাজধানীর দক্ষিণখানে দেবরের ছুরিকাঘাতে ভাবি খুন

/এআইবি/এআর/

x