প্রস্তুতিতে সন্তুষ্ট প্রধান নির্বাচক

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট ১৯:২৪ , ডিসেম্বর ০৬ , ২০১৮

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে বিসিবি একাদশওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে বিসিবি একাদশের হয়ে মাঠে নেমেছিলেন মাশরাফি-তামিমসহ ওয়ানডে স্কোয়াডে থাকা আরও কয়েক ক্রিকেটার। সীমিত ওভারের সিরিজ শুরুর আগে এই প্রস্তুতি ম্যাচে খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সে সন্তুষ্ট প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু।

বৃহস্পতিবারের প্রস্তুতি ম্যাচটি আলোর স্বল্পতায় ডাকওয়ার্থ-লুইস মেথডে বিসিবি একাদশ জিতেছে ৫১ রানে। জেতার চেয়ে খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সে সন্তুষ্টি বেশি নান্নুর। বিকেএসপির ম্যাচ শেষ সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেছেন, ‘প্রস্তুতি ম্যাচে সবার ব্যাটিং, বোলিং ও ফিল্ডিংয়ের উন্নতি দেখার প্রত্যাশা থাকে। সেদিন থেকে আমার মনে হয় দলের প্রস্তুতিটা ভালো হয়েছে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ওয়ানডেতে অনেক ভালো দল। এই ফরম্যাটে ওদের দলে পরীক্ষিত পারফরমার আছে। সেই হিসেবে আমাদের জন্য এটি অনেক চ্যালেঞ্জিং একটি সিরিজ। প্রস্তুতি ম্যাচ ভালো হওয়ায় আমরা সন্তুষ্ট।’

অনেকদিন পর দলে ফিরে সেঞ্চুরি পাওয়া তামিমের ব্যাটিং দেখে দারুণ খুশি প্রধান নির্বাচক, ‘তামিম  অনেক দিন পর খেলতে নেমেছে। নেমেই সেঞ্চুরি পেয়েছে। এটা অনেক বড় একটি প্লাস পয়েন্ট। আমি মনে করি, সবকিছু মিলিয়ে ওয়ানডে সিরিজের আগে দল পুরোপুরি প্রস্তুত। আশা করি টেস্ট সিরিজের মতো ওয়ানডে সিরিজেও আমরা ভালো করব।’

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে তামিম ছাড়াই দুর্দান্ত খেলেছে বাংলাদেশ। ওপেনিংয়ে ইমরুল তিন ম্যাচের দুটিতেই পেয়েছেন সেঞ্চুরি, অন্যটিতে করেন ৯০ রান। ইমরুলের সঙ্গে ওপেনিংয়ে খেলা লিটন দাস এক ম্যাচে খেলেছেন ৮৬ রানের ইনিংস। ওই সিরিজেই তৃতীয় ম্যাচে সুযোগ পেয়ে সৌম্য তুলে নেন সেঞ্চুরি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচেও সেঞ্চুরি করে ছিলেন অপরাজিত।

চোট কাটিয়ে তামিম ফেরায় বাংলাদেশ দলে এখন মধুর সমস্যা। তার ওপেনিং সঙ্গী হবেন কে? প্রশ্নের উত্তর জানা নেই নান্নুরও। ম্যাচের আগে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে জানিয়েছেন তিনি, ‘আমাদের দলের জন্য এটি অনেক ভালো দিক। ব্যাকআপ ক্রিকেটাররাও যথেষ্ট ভালো অবস্থানে আছে। এমন প্রতিযোগিতা দলের জন্য সবসময়ই ভালো। তামিমের সঙ্গে ওপেনিংয়ে কে যাবে, এই নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। ম্যাচের আগের দিন আমরা সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারব।’

ব্যাটিংয়ের মতো বোলিংটা ভালো হয়নি বিসিবি একাদশের। তবে প্রধান নির্বাচক মনে করেন, বিকেএসপির ফ্লাট পিচে পেসারদের করার মতো তেমন কিছু থাকে না, ‘বিকেএসপির এই ফ্লাট ট্র্যাকে বোলিং সেভাবে বোঝা যায় না। যেহেতু আমরা মিরপুরে খেলব, সেই হিসেবে সেখানকার পিচের ধারণা করে দল সাজানো হবে। সিদ্ধান্ত নিতে হবে আমরা তিন পেসার নাকি স্পিনার নিয়ে খেলব।’

/আরআই/কেআর/

x