এখনই বাংলাদেশ ম্যাচে ডুবে ভারতের ফুটবল কোচ

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট ২১:৪০ , সেপ্টেম্বর ১১ , ২০১৯

কাতারের সঙ্গে ড্রয়ের পর ভারতীয় খেলোয়াড়দের উল্লাসবাংলাদেশ-ভারত ম্যাচ মানে অন্যরকম উত্তেজনা। ক্রিকেটে তো বটেই, একটা সময় ফুটবলেও হতো হাডাহাড্ডি লড়াই। কালের পরিক্রমায় বাংলাদেশের ফুটবল সোনালি দিন হারিয়েছে, অন্যদিকে ভারতের বিপক্ষেও খেলা হয়নি। লম্বা বিরতি দিয়ে ফুটবল লড়াইয়ে আবারও ফিরছে বাংলাদেশ-ভারত।

এশিয়া অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইয়ে আগামী ১৫ অক্টোবর কলকাতার সল্টলেক স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে প্রতিবেশী দেশ দুটি। এক মাসেরও বেশি সময় বাকি, কিন্তু ভারতের কোচ ইগোর স্তিমাক এখনই ডুবে আছেন ‘ই’ গ্রুপের এই ম্যাচটিতে।

মাঠের রণকৌশল যাইহোক, আপাতত দর্শক সমর্থনের বিষয়টি পাকাপোক্ত করে নিতে চান এই ক্রোয়েট কোচ। বিশাল জনসংখ্যার ভারতে ফুটবলের প্রতি মানুষের ভালোবাসার নিদর্শন দেখতে চান তিনি বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে। তাই তার চাওয়া, সল্টলেক স্টেডিয়াম যেন কানায় কানায় পূর্ণ থাকে।

মূলত, কাতারের বিপক্ষে ম্যাচের ফল স্তিমাকের আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দিয়েছে। ২০২২ বিশ্বকাপের আয়োজকদের মাঠ থেকে গোলশূন্য ড্র করে গুরুত্বপূর্ণ ১ পয়েন্ট নিয়ে আসা কম কথা নয়। বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ নিয়ে তাই এখনই ভাবতে শুরু করেছেন ভারতীয় এই কোচ।

তাছাড়া কলকাতার মানুষ কতটা ফুটবলপ্রেমী, সেটাও তার জানা। বিশেষ করে, ইস্ট বেঙ্গল-মোহনবাগান ম্যাচ নিয়ে বিভক্ত হয়ে পড়ার গল্প শোনা আছে তার। কলকাতার ফুটবল উত্তেজনা মাথায় রেখেই বাংলাদেশের বিপক্ষে লড়াইয়ে স্তিমাকের বাড়তি চাওয়া।

কাতারের সঙ্গে ড্রয়ের পর তিনি বলেছেন, ‘আমাদের দেশে ১৩০ কোটির বেশি মানুষ থাকলেও ফুটবল মাঠের দর্শক উত্তেজনা সে কথা বলে না। কলকাতায় বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচে আমি ৮০ হাজার মানুষ দেখতে চাই গ্যালারিতে। আমরা অবশ্যই এই সমর্থন পাওয়ার দাবিদার।’

বিশ্বকাপ বাছাইয়ে ‘ই’ গ্রুপে ভারত দুটি ম্যাচ খেলেছে। আসামের প্রথম ম্যাচে ওমানের বিপক্ষে এগিয়ে গিয়েও হারতে হয়েছে ২-১ ব্যবধানে। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে চমক দেখিয়েছে ভারত, শক্তিশালী কাতারকে তাদের মাঠে আটকে দিয়েছে গোলশূন্য ড্র করে। অন্যদিকে বাংলাদেশ নিজেদের প্রথম ম্যাচে ১-০ গোলে হেরেছে আফগানিস্তানের বিপক্ষে।

/টিএ/কেআর/

x