তিন পুরুষের বেহালাবাদক রেজাউল করিম

লিনা দিলরুবা শারমিন ১৮:১৮ , এপ্রিল ২২ , ২০১৮

আব্দুর রহিম সরকার, ফোক গানের জন্য যার সুনাম ছিল দিকে দিকে। তার ছেলের নাম রামিজুদ্দিন সরকার। বাবার হাত ধরে যার গানের দুনিয়ায় যাত্রা। মানুষকে সুরে মাতিয়েছেন তিনিও। তার ছেলে মোঃ রেজাউল করিম শ্যামল। সুর আছে যার যন্ত্রেও। তিন পুরুষ ধরে সংগীতচর্চা করা এই পরিবারের আদি নিবাস মুন্সিগঞ্জে।

রেজাউল করিম
রেজাউল করিম, বেহালাতে যার সুর একবার শুনে ভুলে যাওয়া কঠিন। শেখার হাতেখড়ি বাড়িতেই। বাবাকে দেখেই বেহালার প্রতি ভালোবাসা জাগে। শিখতে শুরু করেন বাবার কাছ থেকেই। শেখার আগ্রহ জ্ঞানের পিপাসা তৈরি করে। আর তাই রাস্তা দেখায় নতুন কিছু শেখার। সে রাস্তা ধরেই ভর্তি হন বাফাতে। চার বছরের ডিপ্লোমা শেষ করেন। কিন্তু তারপরও মনে হয় আরও কিছু শিখতে হবে। শুরু করেন আবারও শেখা। বর্তমানে শিখছেন বাংলাদেশের পণ্ডিত অসিত দে এবং ভারতের প্রাভীন শিবলিকার কাছে।

বেহালা বাজাচ্ছেন রেজাউল করিম
নিজে শেখার পাশাপাশি তিনি বেহালা শেখাচ্ছেনও। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক অঙ্গ প্রভাতফেরী-তে বেহালা বাজানো শেখান তিনি। এ ছাড়াও মিরপুর ২-এ ফোর স্ট্রিংস নামে একটি স্কুলও আছে তার। জানালেন, তরুণ প্রজন্মকে বেহালায় আগ্রহী করতেই এই উদ্যোগ নিয়েছেন।
পেশাগত দিক থেকেও আছেন শিক্ষকতায়। বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলোজিতে অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর হিসেবে কাজ করছেন। এর আগে অর্থনীতিতে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর শেষ করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে থেকে।

বেহালা শেখান এখানে
সম্প্রতি তিনি তালিকাভুক্ত হয়েছেন বাংলাদেশ বেতারে। এছাড়া ঝুলিতে আছে বেশ কিছু সম্মাননাও। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় আয়োজিত হিম উৎসবে পেয়েছেন বিশেষ সম্মাননা। আরও পেয়েছেন ফিলিপাইন থেকে শেডস অ্যান্ড সাউন্ড বাংলাদেশ এর পক্ষ থেকে সম্মাননা, বাংলাদেশ এমব্যাসি মানিলা সম্মাননা। বেহালা বাজিয়েছেন সংস্কৃতি বিকাশ কেন্দ্র, শুদ্ধ সংগীত প্রসার গোষ্ঠীতে।
রেজাউল করিমের প্রত্যাশা সুরের প্রতি এই ভালোবাসাই একদিন হয়তো আরও বড় কোনও সম্মাননা এনে দেবে তার ঝুলিতে। যার সম্পূর্ণ অহংকার থাকবে এই বাংলার সম্পূর্ণটা জুড়ে।

/এনএ/

x